,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

প্রকৃতির অপার সৌন্দর্য্য ভরপুর রাঙামাটি

111রাঙামাটি সংবাদদাতা, বিডি নিউজ রিভউজ ডটকমঃ    প্রকৃতির অপরুপ সৌন্দর্যময় ছয় ঋতুর বহমান দেশ বাংলাদেশ। , এই দেশের প্রাকৃতির অপার সৌন্দর্য্য দেখতে সুদূর বিদেশ থেকে পর্যন্ত মানুষেরা ছুটে আছে বাংলাদেশে।সরকার এই বছর কে পর্যটন বান্ধব হিসেবে ঘোষনা দিয়েছে। তাই আমাদের প্রয়োজন সরকারের সাথে এক হয়ে আমাদের এই জেলাকে পর্যটন বান্ধব করতে এগিয়ে আসা।’
রোববার রাতে রাঙামাটি শহরের হোটেল প্রিন্স মিলনায়তনে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ’র সহযোগিতায়
এবং হোটেল প্রিন্স’র ব্যবস্থাপনায় অনুষ্ঠিত দু‘দিন ব্যাপি খাদ্য প্রস্তুত ও পরিবেশন বিষয়ক কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেছেন রাঙামাটির জেলাপ্রশাসক মোঃ সামসুল আরেফিন। হোটেল প্রিন্সের ব্যবস্থাপক নেছার আহম্মেদ‘র সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাঙামাটি পাবলিক কলেজের অধ্যক্ষ তাছাদ্দিক হোসেন কবির, রাঙামাটি প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক রাঙামাটির সম্পাদক আনোয়ার আল-হক। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ইয়াছিন রানা সোহেল। অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মোঃ সামসুল আরেফিন আরো বলেন, এই জেলার
আবহাওয়া ও প্রকৃতি অনেক সুন্দর, একে কাজে লাগিয়ে আমরা অনেক কিছু করতে পারি। তবে এর জন্য প্রয়োজন পরিকল্পিত উদ্যোগ। যদি কেউ পর্যটন নগরী হিসেবে রাঙামাটিকে সৌন্দর্য্যমন্ডিত করতে
কোন উদ্যোগ নেয় ,তবে সরকার এর পাশে থাকবে । জেলা প্রশাসক আরো বলেন, রাঙামাটির যে সকল স্থানীয় শিল্পপণ্য রয়েছে তা দেশের বিভিন্ন জেলায় পাঠানোর ব্যবস্থা করতে হবে। এর মধ্যে দিয়ে
এখানকার শিল্পপণ্যের সাথে সবাই পরিচিত হতে পারবে। রাঙামাটিতে তৈরি স্কুল ব্যাগ প্রসংঙ্গে তিনি বলেন, রাঙামাটির কিছু মেয়ে নিজেদের উদ্যোগে স্কুল ব্যাগ তৈরি করে, কিন্তু তা কেউ জানে না বলে এর প্রচার বাহিরে হচ্ছে না। তাই আমি তাদের তৈরি ব্যাগ ক্রয় করে বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থীদেরকে উপহার দিচ্ছি। যদি এই ব্যাগগুলো ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায় পাঠানো যায়, তবে এর নির্মাতারা উপকৃত হবে এবং রাঙামাটি অথনৈতিকভাবে লাভবান হবে। এর মাধ্যমে বেকারত্বও কমবে। সকলকে রাঙামাটির স্থানীয় শিল্পের প্রচারের জন্য এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

বিএনআর/১৬২৮/০০৪/ আর

মতামত...