,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

ফুলের নৌকা উপহার দিয়ে মাহতাব উদ্দিনের সাথে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার প্রত্যয় মেয়রের

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজ.কম::দেশে ফিরে চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীর বাসায় গেলেন।

বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম এসে সন্ধ্যায় দামপাড়াস্থ জহুর আহমদ চৌধুরীর বাসভবনে গিয়ে নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীর সাথে প্রথম সাক্ষাৎ করতে যান আ জ ম নাছির উদ্দীন। এসময় তিনি দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীর সাথে কোলাকুলি করেন এবং ফুলের নৌকা উপহার দেন।

গত ১৫ ডিসেম্বর নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর ইন্তেকালের পর গত ২৩ ডিসেম্বর দলের প্রেসিডিয়ামের সভায় আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীকে নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মনোনীত করেন। ঐ সময় দলের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন দেশে ছিলেননা। এর আগে ১৮ ডিসেম্বর দলের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন পূর্ব নির্ধারিত বিদেশ সফরে চলে যান। গতকাল সকালে তিনি চট্টগ্রাম আসেন এবং সন্ধ্যায় দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীর সাথে দেখা করতে জহুর আহমদ চৌধুরী টাওয়ারে যান। সেখানে দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতির সাথে কুশল বিনিময়ের পাশাপাশি নগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক বিষয়, সংগঠনের সভাপতি ও সাবেক সিটি মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর শোকসভা আয়োজনসহ নানা বিষয়ে মতবিনিময় করেন।

দলের সভাপতি মহিউদ্দিন চৌধুরীর মৃত্যুতে দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতিকে দিয়ে কিভাবে কাজ করবেন এবং দলকে গুছাবেন জানতে চাইলে নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন আজাদীকে জানান, মহিউদ্দিন ভাই দলকে যেভাবে দলকে গুছিয়ে কাজ করেছেন–আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সেভাবেই দলকে গুছিয়ে আনবো।

এখন আমাদের মূল লক্ষ্য আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন। সেভাবেই দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব ভাইসহ সবাই মিলে মহানগর আওয়ামী লীগকে আরো শক্তিশালী করবো।

মহানগর আওয়ামী লীগ সাংগঠনিকভাবে অনেক সমৃদ্ধ উল্লেখ করে দলের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন জানান, যে কোন এলাকা থেকে মহানগর আওয়ামী লীগ অনেক বেশি সমৃদ্ধ। তারপরও আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রতিটি ইউনিট, ওয়ার্ড, থানাকে আরো সংগঠিত করা হবে। সবাইকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে দলের সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধি করবো। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম মহানগরীতে প্রধানমন্ত্রী যাকেই প্রার্থী করবেন তাকে জয়ী করে আনাই আমাদের মূল লক্ষ্য হবে। সেই লক্ষ্যে সবাইকে নিয়ে ওয়ার্ড থেকে শুরু করে থানা–মহানগর পর্যন্ত সাজানো হবে। ইতোমধ্যে আমরা বেশ কিছু সাংগঠনিক কর্মসূচি হাতে নিয়েছি।

আজ শুক্রবার বিকেল ৩টায় চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গণতন্ত্র ও সংবিধান রক্ষা এবং বর্তমান সরকারের নির্বাচনী বিজয়ের ৪র্থ বার্ষিকীতে আওয়ামী লীগের কর্মসূচির অংশ হিসেবে আনন্দ সম্মিলন সমাবেশ করবো। ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে মুসলিম হলে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। এরপর ১১ জানুয়ারি এমএ আজিজের মৃত্যুবার্ষিকীর অনুষ্ঠান, ১৪ জানুয়ারি লালদীঘির মাঠে মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলার উদ্যোগে মহিউদ্দিন চৌধুরীর শোকসভার আয়োজন করা হয়েছে। এরপর দলের সদস্য নবায়ন ও সদস্য সংগ্রহ অভিযান উপলক্ষে অনুষ্ঠান করা হবে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এতে প্রধান অতিথি থাকবেন।

মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীর সাথে আ জ ম নাছির উদ্দীনের বৈঠককালে নগর আওয়ামী লীগের এই দুই শীর্ষ নেতা আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে গুরুত্ব দিয়ে তৃণমূল পর্যায়ে সংগঠনের ভিত আরও মজবুত ও শক্তিশালী করার ওপর গুরুত্বারোপ করে তারা সর্বক্ষেত্রে সংগঠনের ঐক্য, ভ্রাতৃত্ব ও সংহতি অটুট রেখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন, অগ্রগতি, সরকার ও আওয়ামী লীগের উজ্জ্বল ভাবমূর্তি সমুন্নত রাখার সর্বাত্মক প্রয়াস নেওয়া এবং গঠনতন্ত্রের আলোকে সংগঠনকে পরিচালনার বিষয়ে উভয়ে ঐকমত্য পোষণ করেন।

এ সময় নগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা সফর আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য বেলাল আহমদ, বখতেয়ার উদ্দিন খান, আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ ইছা, মেয়রের এপিএস রায়হান ইউসুফ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মতামত...