,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে দেয়ার আশ্বাস জন কেরির

kerry -pmস্টাফ রিপোর্টার, বিডিনিউজ রিভিউজঃ মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি নয় ঘণ্টার সফরে ঢাকায় ব্যস্ত সময় পার করলেন ।

সোমবার ২৮ আগস্ট  সকালে বিশেষ বিমানযোগে তিনি ঢাকা আসেন। এরপর ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধু যাদুঘর পরিদর্শন, প্রধানমন্ত্রীর সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎসহ, পররাষ্ট্র মন্ত্রী পর্যায়ের দ্বি-পক্ষীয় বৈঠক করেছেন।

বৈঠকে, যুক্তরাষ্ট্রে বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনিকে ফিরিয়ে দিতে জোর দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ। জন কেরি পলাতক খুনিকে ফিরিয়ে দেয়ার বিষয়টি বিবেচনার আশ্বাস দেন। বলেন, উন্নয়ন, নিরাপত্তা সহ বিভিন্ন ইস্যুতে বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথেই সমৃদ্ধির পথে এগোচ্ছে বাংলাদেশ।

গুলশানের হলি আর্টিজান ট্র্যাজেডিতে বিদেশি নাগরিক হত্যার পর টেলিফোনে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে দিয়েছিলেন পাশে থাকার আশ্বাস, জানিয়েছিলেন সমবেদনা। সহযোগিতার বার্তা দিয়ে পাঠিয়েছিলেন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিশা দেশাই বিশওয়ালকেও।

এবার সংক্ষিপ্ত সফরে প্রথমবারের মতো নিজেই ঢাকায় আসেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি। সোমবার সকাল ১০টার কিছু পরে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে সুইজারল্যান্ড থেকে কেরিকে বহনকারী যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ বিমানটি।

বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। ফুলেল শুভেচ্ছায় কেরিকে জানানো হয় অভ্যর্থনা। এরপর ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি যাদুঘর পরিদর্শনের মধ্য দিয়ে ঢাকায় তাঁর কর্মসূচি শুরু করেন মার্কিন মন্ত্রী। ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে। পরিদর্শন বইয়ে লিখেন, বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথে, তাঁরই কন্যার সুদৃঢ় নেতৃত্বে সমৃদ্ধির পথে চলছে বাংলাদেশ।

ধানমন্ডি থেকে বেলা ১২টার পর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে শেখ হাসিনার সাথে সৌজন্য সাক্ষাত করতে যান কেরি। আলোচনায় সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের পাশেই থাকবে বলে জানান তিনি।

সোমবার দুপুর একটার পর রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে যোগ দেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী, বাণিজ্যমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আইনমন্ত্রী। ঘণ্টাব্যাপী চলা এ বৈঠকে প্রাধান্য পায় নিরাপত্তা ইস্যু, সন্ত্রাসবাদ দমন, বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনিকে ফিরিয়ে দেয়াসহ সহযোগিতামূলক নানা বিষয়। জানানো হয়- ঢাকার আতিথেয়তায় মুগ্ধ কেরির আশ্বাস মিলেছে বেশ কয়েকটি বিষয়ে।

পরে সাংবাদিকদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, ‘আলোচনায় নিরাপত্তার বিষয়টি উঠে এসেছে। বঙ্গবন্ধুর খুনিকে ফিরিয়ে দেয়ার বিষয়ে খুবই খোলামেলা আলোচনা হয়েছে। তিনি বলেছেন, দেশে ফিরে গিয়ে বিষয়টি দেখবেন।’

আর বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘অত্যন্ত ভালো আলোচনা হয়েছে। বাংলাদেশের সফল অগ্রগতিতে তারা খুব খুশি।’

পারষ্পরিক নানা ইস্যুতে জন কেরির ঢাকা সফল বাংলাদেশের জন্য একটি উল্লেখযোগ্য কূটনৈতিক অর্জন বলেও মনে করে দেশের ঊর্ধ্বতন নেতৃবৃন্দ।

মতামত...