,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বঙ্গোপসাগরের জলদস্যুরা বেপরোয়া বাঁশখালীতে ১১ জেলে সহ বোট উদ্ধার

240নিজস্ব প্রতিবেদক,চট্টগ্রাম,১৬, জানুয়ারি (বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম): বঙ্গোপসাগরের জলদস্যুরা শীত মৌসুমকে সামনে রেখে আবারো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। গত এক সপ্তাহে চট্টগ্রাম এবং কক্সবাজারের বিভিন্ন উপজেলার বেশ কয়েকটি ফিশিং বোটে ডাকাতি এবং জেলেদের অপহরণের ঘটনা ঘটেছে। জলদস্যুদের কার্যক্রমে জেলেরা তাদের কবল থেকে বাঁচার জন্য বারবার প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করলেও বাস্তব অর্থে প্রশাসনের পক্ষ থেকে আশানুরূপ সহযোগিতা পাচ্ছেনা বলে জলদস্যুদের কবলে পড়া জেলে এবং জেলে পরিবারের পক্ষ থেকে নানান অভিযোগ করা হচ্ছে। চলতি জানুয়ারিতে বাঁশখালী, চকরিয়া,মহেশখালী কুতুবদিয়া থেকে শুরু করে বেশ কিছু এলাকার জেলেরা জলদস্যুদের হামলা এবং নির্যাতনের শিকার হয় এবং অনেকেই জলদস্যুদের চাহিদা অনুযায়ী চাঁদা দিয়ে জীবন নিয়ে ফিরে আসে। এদিকে নোয়াখালীর হাতিয়া এলাকার বঙ্গোপসাগর হতে অপহৃত ফিশিং বোট ও ১১ জেলেকে বাঁশখালীর গন্ডামারা সাগরচর হতে উদ্ধার করেছে বাঁশখালী থানা পুলিশ। গতকাল শুক্রবার দুপুরে স্থানীয় জনতার সহযোগিতায় বাঁশখালী থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদারের নেতৃত্বে একদল পুলিশ জলদস্যুদের কবলে পড়া ১১ জেলে সহ বোট উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।

জানা যায়, হাতিয়া উপজেলার দেলোয়ার মাঝির মাছ ধরার ছোট্ট ট্রলারটি বৃহস্পতিবার সকালে বঙ্গোপসাগরের দমারহবি এলাকায় মাছ ধরার জন্য জাল ফেলে। সাগরে জাল নিক্ষেপ করে মাঝিমাল্লারা ফিশিং বোটে অবস্থান করে। এ সময় বিপরীত দিক থেকে আসা জলদস্যুদের হামলার শিকার হয় তারা। পরবর্তীতে জলদস্যুদের তাদের বোট সহ ১১ মাঝিমাল্লাকে অপহরণ করে নিয়ে আসার পথে বঙ্গোপসাগরের তীরবর্তী বাঁশখালীর গন্ডামারা ইউনিয়নের পশ্চিম গন্ডামারা সাগর এলাকায় চরে আটকা পড়ে। ফিশিং বোটটি আটকে যাওয়ার পর থেকে অপহরণকারীরা ১১ জেলেকে মারধর ও নির্যাতন করে। এসময় স্থানীয় জনতা পুলিশকে খবর দেয় এবং পুলিশসহ তারা এগিয়ে আসলে অপহরণকারীরা দ্রুত পালিয়ে যায়। পুলিশ এসময় অপহরণকৃত ফিশিং বোট ও ১১ মাঝিমাল্লাকে উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত ১১ জেলেরা হলেন, বাবুল মাঝি (৩২), মোঃ ভেছু (২৯), মোঃ রিটন(২৬), মোঃ সমীর (১৮), মোঃ রাসেল (২২), মোঃ এমরান (২০), হেলাল উদ্দিন(২২), মোঃ শামীম (২২), মোঃ সুমন (২৫), মোঃ হানিফ (৫২), মোঃ ফকির (৪০)

এই ব্যাপারে বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ স্বপন কুমার মজুমদার বলেন,বঙ্গোপসাগরের বাঁশখালী উপকূলে জলদস্যুরা একটি ফিশিং বোট সহ ১১ মাঝিমাল্লাকে অপহরণ করে নিয়ে আসার খবর পেয়ে বাঁশখালী থানা পুলিশের বিশেষ টিম সেখানে গিয়ে অপহৃত জেলেদের উদ্ধার করে এবং তাদের থানায় নিয়ে আসা হয়। তিনি আরো বলেন, বঙ্গোপসাগরের জলদস্যুরা বার বার জেলেদের উপর হামলা ও নির্যাতন চালাচ্ছে। তাদের প্রতিরোধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

মতামত...