,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বদির অবৈধভাবে সম্পদ অর্জনের মামলায় সাক্ষী গরহাজির

ঢাকা,০৯ ডিসেম্বর (বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম):: কক্সবাজার-৪ আসনের সরকারদলীয় সংসদ সদস্য (এমপি) আবদুর রহমান বদির অবৈধভাবে সম্পদ অর্জনের মামলায় কোনো সাক্ষী হাজির করতে পারেনি দুদক।

বুধবার এ মামলাটিতে সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য থাকলেও কোনো সাক্ষী আদালতে সাক্ষ্য দিতে হাজির হননি। সেজন্য দুদকের পক্ষে আইনজীবী সাক্ষী হাজির করার জন্য সময়ের আবেদন করেন।

ঢাকার তৃতীয় বিশেষ জজ আবু আহম্মেদ জমাদ্দার দুদকের দাখিলকৃত সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে আগামী ২৩ ডিসেম্বর সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য পরবর্তী তারিখ ধার্য করেন।badi

এর আগে গত ২ ডিসেম্বর এই আদালতে মামলার বাদী দুদকের উপ-পরিচালকের সাক্ষ্যগ্রহণ সমাপ্ত হওয়ার পর ৯ ডিসেম্বর সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য করেছিলেন।

মামলাটিতে আসামি বদির বিরুদ্ধে ছয় কোটি ৩৩ লাখ ৯৪২ টাকা অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ করা হয়েছে।

২০১৪ সালের ২১ আগস্ট এমপি বদির বিরুদ্ধে দুদকের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ আব্দুস সোবহান এই মামলাটি দায়ের করেন। এতে নির্বাচন কমিশনে জমা দেয়া হলফনামার বাইরে ১০ কোটি ৮৬ লাখ ৮১ হাজার ৬৬৯ টাকা অবৈধ সম্পদ থাকার অভিযোগ আনা হয়।

পাঁচ বছরে তার আয় ৩৬ কোটি ৯৬ লাখ ৯৯ হাজার ৪০ টাকা। হলফনামা অনুসারে তার বার্ষিক আয় ৭ কোটি ৩৯ লাখ ৩৯ হাজার ৮০৮ টাকা। আর বার্ষিক ব্যয় ২ কোটি ৮১ লাখ ২৯ হাজার ৯২৮ টাকা।

২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে জমা দেয়া হলফনামায় তার বার্ষিক আয় ছিল ২ লাখ ১০ হাজার ৪৮০ টাকা। ব্যয় ছিল ২ লাখ ১৮ হাজার ৭২৮ টাকা। ওই সময় বিভিন্ন ব্যাংকে তার মোট জমা ও সঞ্চয়ী আমানত ছিল ৯১ হাজার ৯৮ টাকা। পাঁচ বছরে তার সম্পদ ‍বৃদ্ধি পেয়েছে ৩৫১ গুণ।

চলতি বছর ৭ মে দুদকের উপ-পরিচালক মঞ্জিল মোর্শেদ আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। মামলাটিতে তিনি গত বছর ১২ অক্টোবর ঢাকা সিএমএম আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন প্রার্থনা করলে বিচারক তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠান। পরবর্তীতে তিনি হাইকোর্ট থেকে জামিন পান।

মতামত...