,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বন্ধ ক্লাস ও পরীক্ষা,শিক্ষক কর্মবিরতির তৃতীয় দিনে

নিজস্ব প্রতিবেদক,ঢাকা,১৩, জানুয়ারি (বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম),অষ্টম জাতীয় বেতন কাঠামোয় পদমর্যাদার অবনমন ও বৈষম্যের প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের লাগাতার কর্মসূচি বুধবার তৃতীয় দিনে গড়িয়েছে। বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের ডাকে সোমবার (১১ জানুয়ারি) থেকে ৩৭টি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা লাগাতার কর্মবিরতি শুরু করেন শিক্ষকরা।
লাগাতার কর্মবিরতিতে দেশের সরকারি ৩৭ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। শিক্ষক কর্মবিরতির তৃতীয়  দিনে সব বিশ্ববিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষে তালা ঝুলতে দেখা গেছে। বন্ধ ক্লাস ও পরীক্ষা।
এদিকে লাগাতার কর্মবিরতির তৃতীয় দিনে বুধবার শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের নেতারা। সচিবালয়ে বৈঠক শেষে অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন জানান, চলমান আন্দোলন নিরসনে পথ নিশ্চয়ই বের হবে। সমাধান না আসলে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার কথাও জানান এ শিক্ষক নেতা।
বৈঠকে সমাধানের কোন ক্ষেত্র পাওয়া গেছে কি-না জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এ সমস্যার সুষ্ঠু সমাধানে আলোচনা এগোচ্ছে। নিশ্চয়ই সমাধানের পথ বের হবে।
এদিকে লাগাতার এ কর্মবিরতির চলার সময়ে বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের মহাসচিব অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল সাংবাদিকদের জানান, ‘দাবি মেনে নিলে আজই ক্লাসে যাবো’।
তিনি বলেন,  আমাদের দাবি যৌক্তিক। এই যৌক্তিক দাবি মেনে নিলে আজই ক্লাসে ফিরে যাবো আমরা, আন্দোলন প্রত্যাহার করবো।
অধ্যাপক মাকসুদ কামাল বলেন, বিশ্বের অনান্য দেশে শিক্ষকদের যে সম্মান দেওয়া হয় সেই সম্মান যদি পাই তবেই বিশ্বের সঙ্গে তুলনা করা ঠিক হবে। এ ক্ষেত্রে রাষ্ট্রেরও দায়িত্ব রয়েছে, দেখতে হবে বর্হিবিশ্ব বাংলাদেশের শিক্ষকদের কীভাবে দেখতে চায়। এ সময় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিনও উপস্থিত ছিলেন।

মতামত...