,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের পুনর্বাসনে ১৩৭ কোটি টাকার সরকারী সহায়তা

আকস্মিক বন্যা ও পাহাড়ি ঢলে ক্ষতিগ্রস্ত ২৪ জেলার প্রায় পৌনে ৮ লাখ কৃষকের পুনর্বাসনে এক শত ৩৭ কোটি টাকা সহায়তা দিচ্ছে সরকার। সহায়তা হিসেবে তাদের দেয়া হচ্ছে বীজ,সার ও নগদ টাকা। এর ফলে কৃষকরা ক্ষতি কাটিয়ে নতুন করে ফসলের আবাদ শুরু করতে পারবেন বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী। মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে ব্রিফ্রিংয়ে মন্ত্রী বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা জানান।

এ বছর মার্চে হাওরে আকস্মিক বন্যা দেখা দেয়। বর্ষা মৌসুমে অতি বৃষ্টি আর পাহাড়ি ঢলে ভয়াবহ বন্যার কবলে পড়ে উত্তরাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চল। বন্যায় তলিয়ে যায় বিস্তীর্ণ ফসলের ক্ষেত। ঘরবাড়ি। ভেসে যায় গবাদিপশু।

সে ক্ষতির রেশ এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি দেশ। এই পরিস্থিতিতে কৃষকদের ক্ষতি কাটিয়ে সামনের মৌসুমের আবাদের জন্য আগে থেকেই সজাগ রয়েছে সরকার। চলমান কৃষি প্রণোদনা কার্যক্রমের পাশাপাশি এবার নতুন করে নেয়া হয়েছে পুনর্বাসন কর্মসূচি।

এ কর্মসূচির আওতায় হাওর অঞ্চলের ৬ জেলার ৬ লাখ ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষককে ১শ’ ১৭ কোটি টাকার বীজ, ডিএপি ও এমওপি সার এবং নগদ ১ হাজার টাকা করে দেয়া হচ্ছে। এছাড়া বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ১৮ জেলার ১ লাখ ৭৬ হাজার কৃষককে দেয়া হচ্ছে প্রায় ২০ কোটি টাকা। কৃষিমন্ত্রী বলেন, সরকার বোরো ১৭-১৮ এবং রবি ১৭-১৮ মৌসুমে ৭ লক্ষ ৭৬ হাজার ২শ ২ জন কৃষককে পুনর্বাসনে ১৩৬ কোটি ৯৯ লক্ষ ৯৯ হাজার ৫৫১ টাকার সার ও বীজ প্রদান করবে।

এ কর্মসূচির পাশাপাশি ৬৪ জেলায় সরকারের কৃষি প্রণোদনা কর্মসূচিও চালু থাকবে বলে জানান মন্ত্রী। এছাড়া কৃষির আধুনিক প্রযুক্ত হিসেবে কলার ভেলায় আপদকালীন সময়ের জন্য রোপা আমনের ভাসমান বীজতলা তৈরির জন্য প্রায় ১ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে সরকার।

মতামত...