,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বরিশালে চুরির অপবাদে ২ শিশুকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন

aনিজস্ব প্রতিবেদক,বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃবরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার ছোট বাশাইল গ্রামে কবুতর চুরির অপবাদে এবার দুই শিশুকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করলেন ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য।

শুক্রবার (২২ এপ্রিল) সন্ধ্যায়  এ ঘটনা ঘটে।

 ইউপি সদস্য প্রভাবশালী হওয়ায় প্রথমে কেউ তার বিরুদ্ধে মুখ খোলেনি। পরবর্তীতে এক কান দু’কান করে ঘটনা প্রচার হয়ে গেলে সর্বমহলে সমালোচনার সৃষ্টি হয়। সেই সাথে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের ভুমিকা নিয়েও প্রশ্ন ওঠে।

এখন নির্যানতকারীদের হন্য হয়ে খুঁজছে পুলিশ। কিন্তু গ্রেপ্তার আতঙ্কে তারা গা-ঢাকা দিয়েছে তারা।

নির্যাতিত ওই দুই ছাত্র হচ্ছে- আগৈলঝাড়া উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের ছোট বাশাইল গ্রামের খোকন বেপারীর ছেলে ও ছোট বাশাইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র সাগর বেপারী (১০) এবং একই এলাকার মোহাম্মাদ আলী শিকদারের ছেলে ও একই বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র তুষার শিকদার (১২)।

তাদের মধ্যে সাগরের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

স্থানীরা  জানায়, ওই দুই শিশুকে কবুতর চুরির মিথ্যে অপবাদ দিয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় ছোট বাশাইল কালুশা মাজারের একটি নারকেল গাছের সাথে বেঁধে রাখা হয়। পরে রাজিহার ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য বিএনপির নেতা মো. বরকত উল্যাহর নেতৃত্বে স্থানীয় মনির চৌকিদার, নাসির চৌকিদার এবং তাদের সহযোগিরা তিন ঘন্টাব্যাপী দুই শিশুর ওপর শারিরিক নির্যাতন চালায়।

  সাগরে মা রওশনারা বেগম ঘটনাস্থলে এসে ইউপি সদস্যের হাতে পায়ে ধরে নির্যাতন বন্ধের অনুরোধ করেন। কিন্তু এতে কোনো কর্ণপাত না করে উল্টো রওশনারা বেগমকেও শারিরিকভাবে লাঞ্ছিত করা হয়। পরবর্তীতে রওশনারা বেগম তার ভাই আব্বাস উদ্দিনকে খবর দেয়ার পর তিনি এসে আহত দুই শিশুকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান।

সাগরের মা রওশনারা বেগম অভিযোগ করেন, তার ছেলেকে মেম্বার বরকত উল্যাহ গাছের সাথে বেঁধে নির্যাতন করেছে। এ ঘটনায় জড়িতদের উপযুক্ত বিচার চান তিনি।’

 আগৈলঝাড়া থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম  জানান, শনিবার বেলা ৩টার দিকে বিষয়টি সম্পর্কে তিনি জেনেছেন। এসময় সাথে সাথে তিনি নির্যাতনকারীদের গ্রেপ্তারে নির্দেশ দিয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছেন

মতামত...