,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বাঁশখালিতে পুলিশের গুলিতে নিহত পরিবারের ৮৩ লাখ টাকা বিতরন

aনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ চট্টগ্রাম,চট্টগ্রামের বাঁশখালিতে কয়লা বিদ্যুৎ স্থাপনকে কেন্দ্র করে পুলিশের গুলিতে নিহত ও আহতের পরিবারের মধ্যে সরকারের পক্ষ থেকে আর্থিক অনুদান দেয়া হয়েছে। শুক্রবার বিকালে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক বাঁশখালি গন্ডামারা গ্রামে গিয়ে নিজ হাতে আহত নিহত মোট ৬২ জনের পরিবারকে ৮২ লাখ ৭৫ হাজার টাকার চেক হস্তান্তর করেন।

জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন জানান, নিহত ৪ জনের বাড়িতে গিয়ে প্রত্যেক পরিবারকে ১৫ লাখ টাকা করে দেয়া হয়েছে। এছাড়া আহতদের মধ্যে যারা হাসপাতালে ভর্তি আছেন তাদের ১১ জনকে এক লাখ টাকা করে এবং সুস্থ্য হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন এমন আহত ৪৭ জনকে ২৫ হাজার টাকা করে দেয়া হয়েছে।

আর্থিক অনুদানের চেক হস্তান্তরকালে জেলা প্রশাসক বলেন, এ সরকার জনবান্ধব সরকার। জনগণের মতামতে বাইরে গিয়ে সরকার কিছুই করবে না। পুলিশ দিয়ে গুলি করে কখনই সরকার বিদ্যুৎ কেন্দ্র করতে চায় না।
তিনি বলেন বাঁশখালিবাসীর মতামতের ভিক্তিতে পরিবেশের ক্ষতি না করেই বিদ্যুৎ কেন্দ্র করা হবে। আধুনিক প্রযুক্তির কারণে কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্রে আগের মতো ধোঁয়া বের হয় না বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা পুলিশ সুপার হাফিজ আকতার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাবিবুর রহমান, এস আলম গ্রুপের পরিচালক শহীদুল আলম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, ওসি স্বপন কুমার মমজুমদার, স্থানীয় চেয়ারম্যান প্রমুখ। এর আগে গন্ডামারায় পৌছে তারা নিহতদের কবর জেয়ারত করেন এবং তাদের পরিবারে খোঁজখবর নেন।

উল্লেখ্য, বাঁশখালিতে এস আলম গ্রুপের কয়লা বিদ্যুৎ নির্মাণকে গত ৪ এপ্রিল সোমবার গন্ডামারা গ্রামে পক্ষ-বিপক্ষ ডাকা সমাবেশ নিয়ে সংর্ঘষ চলাকালে পুলিশের গুলিতে মর্তুজা আলী (৬০) তার ভাই আনোয়ার হোসেন (৫৫) মর্তুজার বড় মেয়ের স্বামী জাকির আহমদ (৪০) ও মো. জাকের (৫০)নামে ৪ জন নিহত হয়। ১১ পুলিশ আনসারসহ ৩০ জনের মত আহত হয়।

বসতভিটা ও কবরাস্থান রক্ষা কমিটির ব্যানারে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী এ আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন।

মতামত...