,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বাঁশখালীতে পারিবার পরিকল্পানার স্থায়ী পদ্ধতি গ্রহনের পর গৃহব্ধুর পুত্র সন্তান প্রসর!

bশাহ মুহাম্মদ শফিউল্লাহ্, বাঁশখালী প্রতিনিধি,বিডিনিউজ রিভিউজঃঃ বাঁশখালী পৌরসভার উত্তর জলদী গ্রামের কৃষক ছরোয়ার আলম ৫ সন্তানের জনক অভাবের সংসাওে পরিবারের সদস্য আরা না বাড়াতে ১৮ জুন ২০১৪ সালে স্ত্রী সেতু আরা বেগম কে নিয়ে বাঁশখালী হাসপাতালের পরিবার পরিকল্পানা বিভাগে গিয়ে স্ত্রীর আর বাচ্চা না হওয়ার জন্য স্থায়ী পদ্ধতি (লাগিয়েশন) গ্রহন করেন।

কিন্তু ২০১৫ সালের মার্চে তার অনুভাব হয় ১৬-০৯-১৬ ইং তারিখে পের্টে বাচ্চা হওয়ার এর পর হাসপাতালে গিয়ে বহি বিভাগে চিকিৎসা নেওয়ার পর নিশ্চিত হয়। তার পের্টে বাচ্চা হয়েছে।

সর্বশেষ গত শুক্রবার দুপুর ১২ টার সময় ১টি ছেলে সন্তান প্রসব করান বাঁশখালী হাসপাতালের সিনিয়র ষ্টাফ নার্স মায়া বড়–য়া এ ব্যপারে উপজেলা পরিবার পরিকল্পানা অফিসের ডাক্তার শ্যামলী দাশ বলেন, এরকম শতে ২/১ টা হয়ে থাকে এই অপরেশনের নাম হচ্ছে ম: বন্ধ্যারা এই অপরেশন করার সময় ২টা টিউভ থাকে এই ২টার মধ্যে ১টা কাটা না গেলে পুনরায় বাচ্চা হতে পারে। সরকার এ খাতে কোটি কোটি টাকা ব্যয় করলেও তাতে কয়টুকু সুফল পাচ্ছে জনগণ স্থানীয় স্বছেতন মহলের দাবি এ বিষয়ে অভিজ্ঞ ডাক্তার দারা অপরেশন করা প্রজোয়ন এইসব গরীব দু:খি: মানুষের যেনো এইভাবে কষ্ট পেতে না হয়।

মতামত...