,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বাঁশখালী পৌর এলাকায় দক্ষিণ জলদী কোন প্রাথমিক বিদ্যালয় নাই

শাহ মুহাম্মদ শফি উল্লাহ,বাঁশখালী  ,বিডিনিউজ রিভিউজঃ  আচার্যজনক হলেও সত্য যে, স্বাধীনতার ৪৫ বছর পরও বাঁশখালী পৌরসভার দক্ষিণ জলদী ৯নং ওয়ার্ডে কোন সরকারি-বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় নাই। দীর্ঘ দিন ধরে আওয়ামীলীগ-বিএনপি ক্ষমতা থাকার পরও এলাকার উন্নয়নগামী কোন নেতৃত্ব স্থানীয় ব্যক্তি না থাকায় কোন বিদ্যালয় স্থাপন হয়নি বলে স্থানীয়দের অভিমত।

bnr ad 250x70 1স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দক্ষিণ জলদী আস্করিয়া পাড়া সড়ক থেকে শীলকূপ মনছুরিয়া বাজার পর্যন্ত এই দীর্ঘ এলাকায় কোন প্রাথমিক বিদ্যালয় নাই। ঐ এলাকায় প্রায় ১৫ হাজার লোকের বসবাস বলে জানান স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর দেলোয়ার হোসেন। এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ রবিউল হোসেন জানান আমরা সাবেক মেয়র শেখ ফখরুদ্দিন চৌধুরীকে একটি বিদ্যালয় স্থাপনের জন্য অনেকবার বলে ছিলাম কিন্তু কাজের কাছ কিছুই হয়নি। নবাগত মেয়র শেখ সেলিমুল হক চৌধুরী নির্বাচিত হওয়ার পর উনাকে এ বিষয়ে অবগত করলে উনি আমাকে আশ্বস্ত করেছেন ২০১৬ সালের মধ্যে জমি নির্ধারণ করে আমাকে জানাবেন। এ ব্যাপারে সেলিমুল হক চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করলে জানা যায় তিনি বলেন আমি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে ওই এলাকায় কোন বিদ্যালয় নাই সেটা জানতে পেরেছি। কিন্তু দুঃখের বিষয় আমি আমার ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে একটি জমি নির্ধারণ করার কথা বলেও তা নির্ধারণ করা সম্ভব হয়নি। গত কয়েকদিন আগে একটি সরকারি খাস জমি ১.০০ একর পরিত্যাক্ত জমির সন্ধান পেয়েছি, ঐ জমি সীমানা নির্ধারণ করে খুব শীঘ্রই জমিতে বিদ্যালয় স্থাপনের কাজ শুরু হবে। গতকাল সারা দিন ঐ এলাকা পরিদর্শন করে দেখা যায় দীর্ঘ ৩ কিলোমিটার জুড়ে অনেক লোকের বসবাস। শীলকূপ সীমান্ত মনছুরিয়া বাজারের উত্তর পার্শ্বে একটি কওমি মাদ্রাসা ও মনছুরিয়া বাজারের পশ্চিম দিকে কিছু দূর পর একটি ফাজিল মাদ্রাসা রয়েছে। স্থানীয়রা জানান এ এলাকায় একটি বিদ্যালয় স্থাপন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এলাকায় কোন বিদ্যালয় না থাকায় পৌর এলাকায় শিক্ষার হার খুবই নগণ্য বলে জানা যায়। একটি এ গ্রেড প্রাপ্ত পৌরসভায় একটি ওয়ার্ডে একটি কোন সরকারি বেসরকারি বিদ্যালয় না থাকায় খুবই দুঃখজনক বলে মনে করেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

মতামত...