,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বাংলাদেশ ব্যাংকে পরিবর্তন আসছে

abul mal1নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ অ্যাকাউন্ট থেকে ৮০০ কোটি টাকা লোপাট হয়ে যাওয়ার পর গণমাধ্যমের শিরোনাম হয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। বিদেশের গণমাধ্যমেও অর্থ লোপাটের বিষয়টি বেশ গুরুত্বের সঙ্গে উঠে এসেছে। ফিলিপাইনের সিনেট কমিটিতেও এ বিষয়ে আগামীকাল মঙ্গলবার আলোচনা হওয়ার কথা রয়েছে। সরকারও টাকা লোপাটের বিষয়টিকে বেশ গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

সোমবার অর্থ মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন,  ‘এটা সিরিয়াস ব্যাপার। আই টেক ইট ভেরি সিরিয়াসলি।’

এ বিষয়ে বিবৃতি দিবেন কি না জানতে চাইলে মুহিত জানান, তিনি গভর্নর আতিউর রহমানের জন্য অপেক্ষা করছেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হবে কি না জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘ডেফিনেটলি দেয়ার উড বি চেইঞ্জেস।’

সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকের শুরুতেই অর্থমন্ত্রী রিজার্ভ লোপাটের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা বলেন। বৈঠক সুত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বৈঠকের পর এ বিষয়ে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী উপস্থিত সংবাদ কর্মিদের বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। গভর্নর ফিরে আসলে এ বিষয়ে কথা বলব ৷ সেটা আজও হতে পারে, কালও হতে পারে।’

ঘটনার দু’মাসেও বাংলাদেশ ব্যাংক এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রণালয় কিংবা ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদকেও অবহিত করেনি ৷

এ নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে মুহিত রোববার জানিয়েছিলেন,  কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করে এ বিষয়ে একটি বিবৃতি দেবেন বলেও জানিয়েছিলেন মুহিত।

ফিলিপাইনের ইংরেজি দৈনিক দ্য ইনকোয়ারারে গত ২৯ ফেব্রুয়ারি প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ অ্যাকাউন্ট থেকে ১০১ মিলিয়ন ডলার সরিয়ে নেয়া হয়েছে। সুইফট কোর্ড ব্যবহার করেই এ লোপাট হয়েছে বলেও ওই দৈনিকে বলা হয়। লোপাট হওয়া অর্থের ৮১ মিলিয়ন ডলার সরিয়ে যাওয়া হয়েছে ফিলিপাইনের মাকাতি সিটির জুপিটার স্ট্রিটের রিজাল ব্যাংকের কয়েকটি অ্যাকাউন্টে। বাকি ২০ মিলিয়ন পাঠানো হয় শ্রীলংকার একটি ব্যাংকে। প্রাপক সংস্থার নামের বানানে ভুল থাকায় ব্যাংক কর্মকর্তারা ওই অর্থ আটকে দেয়। পরে বাংলাদেশ ব্যাংকের সঙ্গে যোগাযোগ করে তা পাঠিয়ে দেয়।

গত শনিবার ফিলিপাইন সরকার ৮১ মিলিয়ন ডলারের মধ্যে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে ৬৮ হাজার ডলার বাংলাদেশ ব্যাংককে ফেরত পাঠায়।

 

বি এন আর/০০১৬০০৩০০১৪/০০০২১৭/পি

মতামত...