,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বাঙ্গালি জাতি কারো মুখাপেক্ষী নয়:প্রধানমন্ত্রী

228 নিজস্ব প্রতিবেদক,ঢাকা,২৯, ডিসেম্বর (বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম)::বাঙ্গালিরা বিজয়ের জাতি, তাই তারা কারো মুখাপেক্ষী নয় বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  মঙ্গলবার সকালে যশোরে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর ৭২তম ফ্লাইট ক্যাডেট কোর্স ও বি অফিসার ক্যাডেট কোর্সের কমিশনপ্রাপ্তি উপলক্ষে শীতকালীন রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজে যোগ দিয়ে এ কথা বলেন তিনি। সেসময় প্রধানমন্ত্রী কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও ক্যাডেটদের মাঝে পদক, সনদপত্র এবং ফ্লাইং ব্যাজ বিতরণ করেন।  পরে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাঙ্গালিরা বিজয়ের জাতি, তাই তারা কারো মুখাপেক্ষী নয়। নিজেদের সক্ষমতা বাড়াতে নিষ্ঠা ও সততার সাথে কাজ করতে হবে প্রত্যেককে। শেখ হাসিনা বলেন, ভবিষ্যতে বিমান বাহিনীকে আধুনিক বাহিনী হিসেবে গড়ে তুলতে সরকার বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড অব্যাহত রেখেছে। আর এজন্য বাহিনীর প্রত্যেক সদস্যকে ব্যক্তি স্বার্থের ঊর্ধ্বে, জাতীয় স্বার্থকে প্রাধান্য দিয়ে কাজ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘ফোর্সেস গোল-২০৩০’ অনুযায়ী গত ৭ বছরে আমরা সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর উন্নয়ন করে যাচ্ছি। এরই অংশ হিসেবে বিমান বাহিনীতে সংযোজন করেছি এফ-৭ বিজিআই যুদ্ধবিমান, এমআই-১৭১ এসএইচ হেলিকপ্টার, ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপণযোগ্য অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র এফএম-৯০। বিমান ঘাঁটি বঙ্গবন্ধু ও কক্সবাজারকে পূর্ণাঙ্গ ঘাঁটি হিসেবে স্থাপন করা হয়েছে। তিনি বলেন, সকল ধরনের বিমান ও অন্যান্য যন্ত্রপাতির সুষ্ঠু, নিরাপদ ও সাশ্রয়ী রক্ষণাবেক্ষণ এবং ওভারহোলিংয়ের লক্ষ্যে আমরা নির্মাণ করেছি বঙ্গবন্ধু এ্যারোনটিক্যাল সেন্টার। একইসাথে এমআই সিরিজ হেলিকপ্টার ওভারহোলিংয়ের লক্ষ্যে ২১৬ এমআরও ইউনিট নির্মাণের কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে।   এছাড়া স্বাধীনতার পর দেশের বিমানবাহিনীকে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবদানের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার পরপরই যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশের আর্থিক সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও তিনি (বঙ্গবন্ধু) একটি দক্ষ ও চৌকস বিমান বাহিনী গড়ে তোলার উদ্যোগ নেন। অতি অল্প সময়ের মধ্যে বিমান বাহিনীর জন্য বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান স্থাপন করেন। বিদেশ থেকে আধুনিক সমরাস্ত্র সংগ্রহ করেন। জাতির পিতা চট্টগ্রামে জহুরুল হক ঘাঁটির গোড়াপত্তন করেন।  নবীন ক্যাডেটদের নতুন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় জন্য প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী । এর আগে, যশোর বিমান বাহিনী একাডেমি প্যারেড গ্রাউন্ডে পৌঁছানোর পর প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার মার্শাল আবু এসরার এবং বিমান বাহিনী একাডেমির কমান্ড্যান্ট এয়ার কমোডর মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে মন্ত্রী পরিষদ সদস্য, সেনা ও নৌ বাহিনী প্রধান, সংসদ সদস্যরা ও বিমান বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত

মতামত...