,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন ৩০ এপ্রিল শেষ হবে:তারানা হালিম

aনিজস্ব প্রতিবেদক,  বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ চট্টগ্রাম , বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন ৩০ এপ্রিল শেষ হবে  বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন,  আমি বারবার বলেছি বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধিত সিমের তথ্য এনআইডিতে যাচ্ছে। অন্য কোথাও সংরক্ষিত হচ্ছে না। এটি আমি এনসিওর করছি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে তিনি চট্টগ্রামে এরিকসন বাংলাদেশের কার্যালয় ও ‘ইন্টারনেট অব থিংস (আইওটি) পোর্টাল’ উদ্বোধন  অনুষষ্ঠান  এ কথা জানান।

অনুষ্ঠান শেষে প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ৩০ এপ্রিলের পর ক্রমান্বয়ে যেসব মোবাইল ফোন কোম্পানির সিম বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধন করা হয়নি সেগুলোতে সংকেত পাঠাবো।

এসব সিম কয়েক ঘণ্টার জন্যে বন্ধ করে দেওয়া হবে। এভাবে ক্রমান্বয়ে একপর্যায়ে সেগুলো বন্ধ হয়ে যাবে। আমরা এটি করবো কয়েক ঘণ্টা বন্ধ করে ইংগিত দিলে সিমের মালিক গিয়ে নিবন্ধন করে নেবেন বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

টেলিটক বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমি মন্ত্রী হওয়ার পর অনেক কাজে হাত দিয়েছি। এর মধ্যে একটি ছিল অতিরিক্ত কোনো সুবিধা না দিয়ে প্রতিযোগিতামূলক বাজারের জন্য টেলিটককে উপযুক্ত করে তোলা। ইতিমধ্যে টেলিটকের সিম বৃদ্ধি করেছি, রিটেইলার বৃদ্ধি করেছি, কাস্টমার কেয়ারের সংখ্যা বৃদ্ধি করেছি। টেলিটকের রিব্রান্ডিং করেছি।

তিনি বলেন, টেলিটকের নেটওয়ার্ক আরো শক্তিশালী করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে, প্রয়োজনে টেলিটকের জন্য সহজ শর্তে ঋন নেওয়া হবে, এই প্রতিষ্ঠানকে প্রতিযোগিতামূলক বাজারে টিকে থাকার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে, তবে এর জন্য সরকারি প্রতিষ্ঠান হিসেবে অন্য অপারেটরের তুলনায় বাড়তি সুবিধা দেওয়া হবেনা। এসব প্রক্রিয়াগুলো সম্পন্ন হলে টেলিটকের অবস্থা পরিবর্তন হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন প্রতিমন্ত্রী।

তারানা হালিম আরো বলেন, আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কাজ এগিয়ে নিচ্ছি, ইতোমধ্যে মানুষের সাথে ইন্টারনেটের সম্পৃক্ততা হয়েছে, এবার যন্ত্র এবং বস্তুর সাথে কানেকটিভিটি’র কাজ শুরু হবে, বাংলাদেশের সমস্ত বিজনেস, ফ্যাক্টরী , মানুষ, রাজপথ সবকিছু কানেকটিভিটির আওতায় আসবে।

ইতোপূর্বে এরিকসনের সাথে বার্সেলোনায় আমার কথা হয়েছিলো, তারা বলেছিলো ‘ইন্টারনেট অব থিংস’ চালু করা যায় কিনা, তারা সেই প্রচেষ্টা শুরু করেছে।

তিনি বলেন, দেশে ইন্টারনেটের মূল্য বিশ্বের তুলনায় কিছুটা কম, সরকারের রাজস্বের ক্ষতি না করে এই মূল্য আরো কমানো যায় কিনা সেই চেষ্টা করা হচ্ছে।
অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইডেনের রাষ্ট্রদূত ইওহান ফ্রিজেল, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইমরান আহমেদ এবং এরিকসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বি এন আর/০০১৬০০৩০০২৪/০০০৪০৮/এস

মতামত...