,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বিএনপির জাতীয় কাউন্সিল,চট্টগ্রামের রাজনৈতিক অঙ্গনে আলচনার ঝড়

bnp 3 leadrমীর মুহামদ  নাছির উদ্দিন সিকদারঃ বিএনপির জাতীয় কাউন্সিলকে ঘিরে চট্টগ্রামের রাজনৈতিক অঙ্গনে আলচনার ঝড় উঠেছে। গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, চট্টগ্রামের দুই শীর্ষ নেতা বিএনপির বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান এবং দলীয় চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও নগর বিএনপির সভাপতি আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বিএনপির স্থায়ী কমিটিতে স্থান পাচ্ছেন।একই পদের  জন্য দলীয় চেয়ারপার্সনের দপ্তরে তদবির করছেন চট্টগ্রামের আরেক নেতা ও দলটির ভাইস চেয়ারম্যান এম মোর্শেদ খান। এমন পরিস্থিতিতে শেষ পর্যন্ত চট্টগ্রামের কোন দুই নেতা দলটির সর্বোচ্চ এ নীতি নির্ধারনি ফোরামে স্থান পাচ্ছেন তার জন্য অপেক্ষা করতে হবে ১৯ মার্চ অনুষ্ঠেয় কাউন্সিল পর্যন্ত।

বিএনপি চেয়ারপার্সনের একটি সূত্র জানায়, নতুন জাতীয় কমিটিতে সাংগঠনিক কোটায় চট্টগ্রামেরদুজনকে স্থায়ী কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করা হতে পারে।  দলটির  স্থায়ী কমিটির বাইরে কেন্দ্রীয় অন্য পদগুলো যেমন, ভাইস চেয়ারম্যান, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা,যুগ্ম মহাসচিব, সাংগঠনিক সম্পাদক, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক এবং কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য পদ  স্থান পেতে চট্টগ্রামের প্রায় ডজন খানেক নেতা এখন সর্বোচ্চ পর্যায়ে তদবির করছেন। স্থায়ী কমিটির বাইরের পদগুলোর জন্য যারা তদবির করছেন তাদেরকে অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে লন্ডনে অবস্থানরত তারেক রহমানের সবুজ সংকেত ছাড়া কাজ হবেনা বলে জানা গেছে।

 

বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন ও সাবেক হুইপ সৈয়দ ওয়াহিদুল আলম  ভাইস চেয়ারম্যান পদের জন্য, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি জাফরুল ইসলাম চৌধুরী চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা পদের জন্য , কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালনরত গোলাম আকবর খোন্দকার ও উত্তর জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও দলটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরী যুগ্ম মহাসচিব পদের জন্য তদবির করছেন।

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ ডা. শাহাদাত হোসেন সাংগঠনিক সম্পাদক বা আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক অথবা স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক পছন্দের ৩টী পদের ১টি পদ পেতে আগ্রহী । উত্তর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক ও কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক পদে দায়িত্ব পালনরত লায়ন আসলাম চৌধুরী সাংগঠনিক সম্পাদকের ও  সহ-সাংগঠনিক পদের জন্য দলটির বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মাহবুবুর রহমান শামীম, কেন্দ্রীয় শিশু বিষয়ক সম্পাদক বেগম রোজি কবির চেয়ারপার্সরনের উপদেষ্টা হতে তদবির চালাচ্ছেন বলে জানা গেছে।

 

দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক গাজী শাহজাহান জুয়েল আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক হতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বলে তার ঘনিষ্ঠ সূত্রগুলো জানিয়েছে। এর বাইরে দক্ষিণ জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি এনামুল হক এনাম এবং ইফতেখার মহসিন কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য হওয়ার জন্য তদবির করছেন।

বিএন পির এস এম ফজলুল হক, প্রফেসর কামাল উদ্দিন, মোস্তফা কামাল পাশাসহ বর্তমানে কেন্দ্রীয় কমিটির অনেকেই কেন্দ্রীয় কমিতিতে স্থান পেতে  জোর তদবির সালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, চট্টগ্রাম থেকে ত্রুণ নতুন কিছু  মুখ এবারকার কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পেতে পারে। তাদের মধ্যে আছেন- গোলাম আকবর খোন্দকারের ছেলে তারেক আকবর খোন্দকার, সৈয়দ ওয়াহিদুল আলমের মেয়ে ব্যারিস্টার শাকিলা ফারজানা, মীর নাছিরের ছেলে ব্যারিস্টার মীর হেলাল, দস্তগীর চৌধুরীর ছেলে ফয়সাল দস্তগীর এবং যুদ্ধাপরাধী সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ছেলে হুম্মাম কাদের চৌধুরী।

চট্টগ্রাম মহানগরি সভাপতি ও  চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম জিয়া গ্ণতান্ত্রিক ভাবেই দল গঠনে আগ্রহি বলে আমি জানি।  বিএনপি কাউন্সিলের মাধ্যমেই দলের জাতীয় কমিটি গঠিত হবে তা সকলেই দেখবেন এবং জানতে পারবেন।

চট্টগ্রাম মহানগর সম্পাদক  ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, দলের ত্যাগি কর্মীদের অবশ্যই কেন্দ্র মুল্যায়ন করবেন। এখানে কোন তদবির কাজ হবে না। কোন তদবির করতে হবে না। দলে অতীতের কর্ম দেখেই  কাউন্সিলররা মূল্যায়ন করবেন বলে আ্রছিআশা করছি।

বিএন পির কেন্দ্রীয় এক জন নেতা জানিয়েছে,  শূন্য পদ পূর্ণ করার জন্য নয়, বিগত দিনগুলোতে বিএনপির আন্দোলন সংগ্রামে নিজ এলাকায় সক্রিয় ভূমিকা পালন ও দলের প্রতি আনুগত্য প্রদর্শনের পুরস্কার হিসেবে দলের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটিতে আবদুল্লাহ আল নোমান ও আমীর খসরুকে অন্তর্ভুক্তির বিষয়টি প্রায় নিশ্চিত।

দেখা যাক, শেষ পর্যন্ত বি এন পির জাতীয় কাউন্সিলে  চট্টগ্রামের কোন কোন নতুন মুখ ও ত্যাগি নেতা কারা স্থান পাচ্ছে জাতীয় কমিটিতে।

বি এন আর/ ১৬০২১৭/০০০৭৪/এন

মতামত...