,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বিএনপি’র নিবন্ধন বাতিলের দাবী ইসিতে

bnp logoদিলরুবা খানম, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ চাপের মুখে থাকা বিএনপির রাজনৈতিক দল হিসেবে নিবন্ধন বাতিলের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ তৃণমূল কংগ্রেস।

আইন অনুযায়ী, কোনো দল নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধন না থাকলে সেই দল নির্বাচনে অংশ নিতে পারবে না।

তৃণমূল কংগ্রেস সোমবার মে ০২ ইসি সচিব সিরাজুল ইসলামকে এক আবেদনের মাধ্যমে বিএনপির নিবন্ধন বাতিলের দাবি জানিয়েছে।

 আবেদনে বলা হয়,‘উচ্চ আদালতের আদেশ মোতাবেক ১৯৭৫ সালে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জেনারেল জিয়াউর রহমানের ক্ষমতা দখল ও দল গঠন ছিল অবৈধ ও বেআইনি্য, তাই বিএনপির নিবন্ধন আইনত বাতিল যোগ্য।

উচ্চ আদালতের আদেশের ফলে নির্বাচন কমিশন বিএনপির নিবন্ধন ও ধানের শীষ প্রতীক বাতিল বা স্থগিত করার দাবি  মেনে নিতে বাধ্য বলে জানিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস।

ইসিতে জমা দেয়া আবেদনে দলটির চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন গাফফার বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমকে বলেন, ২০১২ সালের ডিসেম্বরে ‘গমের শীষ’ প্রতীক চেয়ে ইসিতে নিবন্ধনের আবেদন করেও বিএনপির অভিযোগের কারণে নিবন্ধন পায়নি তৃণমূল কংগ্রেস। তার দাবি এ সময় নির্বাচন কমিশন তাদের প্রতি অবিচার ক্রেছিল এবং তদেরকে বঞ্চিত করেছে।

 এখন তাদের  দাবী, আদালাতের আদেশ অনুসারে বি এন পি’র নিবন্ধন বাতিল করে তৃণমূল কংগ্রেসকে নিবন্ধন দিয়ে গমের শীষ প্রতীক  বরাদ্দ দেওয়া হউক।

২০১২ সালের ডিসেম্বরে দলগুলোকে নিবন্ধন নেওয়ার জন্য সর্বশেষ গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল ইসি। সেই সময় এক ডজনেরও বেশি দল নিবন্ধনের জন্য আবেদন করলে বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোট, বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্টসহ (বিএনএফ) কয়েকটি দল শর্ত পূরণ সাপেক্ষে রাজনৈতিক দল হিসেবে ইসিতে নিবন্ধন পায়।

বিএনপি, আওয়ামী লীগসহ বর্তমানে ইসিতে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের সংখ্যা ৪০টি।

২০১২ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ তৃণমূল কংগ্রেস, বাংলাদেশ তৃণমূল লীগ হিসেবে প্রতিষ্ঠা পায়। পরবর্তীতে ২০১৫ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর গঠনতন্ত্র সংশোধনের মাধ্যমে দলটির নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় বাংলাদেশ তৃণমূল কংগ্রেস।

নির্বাচন কমিশনের এক কর্মকর্তা জানান, বিএনপি রাজনৈতিক দল হিসেবে নিবন্ধন পেয়েছিল। কাজেই শর্ত ভঙ্গ করলে  বিএনপির নিবন্ধন বাতিল হতে পারে। সেটি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মতামত...