,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বিএনপির নেতৃত্বেই থাকছেন খালেদা – তারেক

kaleda-tarekদিলরুবা খানম , বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ ঢাকা,   বিএনপির ‘চেয়ারপারসন’ ও ‘সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান’ পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান।  নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে স্থাপিত রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় থেকে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের নির্বাচনী এজেন্টরা এই মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন।

আজ বুধবার সকাল ১১টায় খালেদা জিয়ার পক্ষে তার এজেন্ট দলের যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী ও সাড়ে ৩টায় তারেক রহমানের এজেন্ট আরেক যুগ্ম-মহাসচিব মো: শাহজাহান মনোনয়নপত্র দুটি নেন।ঘোষিত সময়সীমার মধ্যে বিএনপির শীর্ষ এই দুই পদে আর কেউ মনোনয়নপত্র না নেয়ায় আবারো দেশের অন্যতম বৃহৎ এই রাজনৈতিক দলের চেয়ারপারসন ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান শীর্ষ দুই পদে বিনা প্রতিদন্ধিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন বেগম খালেদা জিয়া ও তার বড় ছেলে তারেক রহমান। দলীয় কার্যালয়ে  ‘চেয়াপারসন ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচন- ২০১৬’ এর জন্য গঠিত কমিশনের রিটার্নিং অফিসার বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খানের নেতৃত্বে মনোনয়নপত্র বিতরণ কার্যক্রমে  সহকারি রিটার্নিং অফিসার আবদুল মান্নান ও নির্বাচন কমিশনের সদস্য অ্যাডভোকেট হারুন আল রশিদ উপস্থিত ছিলেন। বিকেল ৪টায় মনোনয়নপত্র সংগ্রহের সময়সীমা শেষ হওয়ার পর নজরুল ইসলাম খান বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমকে বলেন, সকাল  ১০টায় চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও বিকেল ৩টা ২৭ মিনিটে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী তারেক রহমান তাদের মনোনীত এজেন্টের মাধ্যমে মনোনয়নপত্র নিয়েছেন। মনোনীত এজেন্টরা তাদের নিয়োগপত্র জমা দিয়ে মনোনয়নপত্র গ্রহণ করেছেন। তিনি বলেন, পুরোটা সময় অপেক্ষা করেছি, আর কেউ মনোনয়নপত্র নেয়নি ।

নির্বাচনের নিয়ম অনুসারে ৪ মার্চ মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন । এরপর বাছাই পর্ব এবং ৬ মার্চ মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের দিন।

নজরুল ইসলাম খান জানান, ৭ মার্চ রিটার্নিং অফিসারের কাজ শেষ হয়ে যাবে। আমরা এরপর একটি প্রতিবেদন নির্বাচন কমিশনকে দেবো। এক পৃষ্ঠার এই মনোনয়নপত্রের কোনো মূল্য রাখা হয়নি। ‘চেয়ারপারসন’ ও ‘সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান’ পদে মনোনয়নপত্রে প্রার্থীর নাম, পিতার নাম ও মাতার নাম, স্থায়ী ঠিকানা, রাজনৈতিক পরিচয়ের বিষয় তথ্যাবলী চাওয়া হয়েছে।

মনোনয়নপত্রে প্রস্তাবক ও সমর্থক হিসেবে স্বাক্ষরদানকারী প্রার্থীসহ ওই  দুজনকে অবশ্যই কাউন্সিলর এবং দলের চাঁদা পরিশোধ থাকতে হবে।

আগামী ১৯ মার্চ বিএনপির ষষ্ঠ কাউন্সিল সামনে রেখে শীর্ষ এই দু’টি পদে নির্বাচন হচ্ছে। গত ২৯ ফেব্রুয়ারি চেয়ারম্যান ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনের জন্য গঠিত নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যান  ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার তফসিল ঘোষণা করেন।

প্রসঙ্গত, ১৯৮৪ সাল থেকে বিএনপির চেয়ারপারসন পদে রয়েছেন বেগম খালেদা জিয়া। ছয় বছর আগে সর্বশেষ কাউন্সিলে  আবারো তাকেই নেতৃত্বের আসনে রাখা হয়। ওই কাউন্সিলেই বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান পদ তৈরি করে তাতে  বসানো হয় তারেক রহমানকে।

বিএনপির শীর্ষ এই দুই পদে আর কেউ মনোনয়নপত্র না নেয়ায় আবারো দেশের অন্যতম বৃহৎ এই রাজনৈতিক দল বিএনপির চেয়ারপারসন ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান শীর্ষ দুই পদে বিনা প্রতিদন্ধিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন বেগম খালেদা জিয়া ও তার বড় ছেলে তারেক রহমান।

 

বি এন আর/০০১৬০০৩০০২/০০০৩৩৬/এস

মতামত...