,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বিএনপির মহাসচিব হচ্ছেন আমীর খসরু ?

kasro-নাছির মীর ,   বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ কাউন্সিলের এক সপ্তাহ পরে বিএনপির সর্বস্তরের নেতা- কর্মীরা যখন প্রবল উৎকণ্ঠার মধ্যে দিন গুনছেন ঠিক তখনই মহাসচিব হিসেবে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর  বাদ পড়েছেন বলে গুঞ্জন শুনা যাচ্ছে। বি এন পির নতুন মহা সচিব হিসাবে আলোচিত হচ্ছে চট্টগ্রাম মহানগরী বি এন পির সভাপতি ও ব্যবসায়ী আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর নাম।

 

কাউন্সিল পরবর্তী  মহাসচিব হিসেবে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নাম শুনা গেলেও কাউন্সিল অধিবেশনের  পরে মহাসচিব হিসেবে মির্জা ফখরুলের বিপরীতে আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর  সমর্থনে অভূতপূর্ব সমর্থন   লক্ষ্য করা গেছে।

বিএনপি নেতাদের মতে,   একমাত্র খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমান অপরিহার্য নেতৃত্ব বি এন পি তে । নেতাকর্মীরা এ দুজনের প্রতি তাদের রাজনৈতিক আনুগত্য প্রকাশ করেছে। ফলে বিএনপিতে এই মুহূর্তে সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষমতা মাত্র দুই জনের। এ দুজনের মধ্যে শুধু রাজনৈতিক নেতৃত্বের সম্পর্ক নয় রয়েছে মাতৃত্বের সম্পর্কও । তাই মহাসচিব পদে নাম ঘোষণা যত বিলম্ব হচ্ছে নেতাকর্মীদের মনে তত প্রশ্ন উঁকি দিচ্ছে। ফখরুল নিয়ে কী কোনো গোপন তথ্য আছে শীর্ষ দুই নেতার কাছে? ফখরুলকে নিয়ে কৌতুহল তৈরি হওয়ার পাশাপাশি মহাসচিব পদে ফখরুলের বিকল্প হিসেবে দলের  নেতারা আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর নিয়ে  চিন্তা করছেন।

সিনিয়র এক নেতা বলেন, ‘অধিবেশনে কাউন্সিলররা চেয়ারপারসনকে বলেছেন, ম্যাডাম বেঈমানদের চিনতে পেছনে তাকাতে হবে না। আপনার আশে পাশে তাকান বেঈমান দেখতে পাবেন। ম্যাডামও বলেছেন, শুধু কেন্দ্রের দোষ দিলে হবে না। তৃণমুলকেও সজাগ থাকতে হবে। ম্যাডামের আশপাশে অর্থাৎ নীতি নির্ধারণী পর্যায় স্থায়ী কমিটি, ভাইস চেয়ারম্যান, উপদেষ্টা পরিষদের মধ্যেই বেঈমান রয়েছে।

এক নেতা বলেন, ‘বিএনপির সঙ্গে চট্টগ্রামের ঐতিহাসিক সম্পর্ক। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত জিয়াউর রহমান মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে চট্টগ্রামের কালুরঘাট বেতার কেন্দ্র থেকে শেখ মুজিবুর রহমানের পক্ষে স্বাধীনতা পাঠ করেন। চট্টগ্রাম লাল দিঘি ময়দান বিএনপির রাজনীতির জন্য এক প্রকার তীর্থ ভূমি। জাতীয়তাবাদী দলের জনককে (জিয়া) চট্টগ্রামেই শহিদ  হয়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘চট্টগ্রামের নেতারা যারা বিএনপির জাতীয় পর্যায়ের রয়েছেন তারা খাঁটি সোনার মতো নির্ভেজাল। চট্টগ্রামের নেতারা দলে দাতা হিসেবেও পরিচিত। গ্লোবাল পলিটিক্সে বিএনপিকে শাক্তিশালী হতে হলে চট্টগ্রামকে প্রাধান্য দিতে হবে। চট্টগ্রামে বেশ কয়েকজন জাতীয় নেতা থাকলেও এই মুহূর্তে আমির খসরু মহামুদ চৌধুরী মহাসচিব হিসেবে উপযুক্ত।’

 

বিশেষ করে ব্যবসায়িক নেতা হিসেবে তার বেশ প্রভাব এবং সুনাম রয়েছে। দেশ-বিদেশের কূটনৈতিক পাড়ায় তার বেশ খাইখাতির রয়েছে। গণমাধ্যমে তার বিষয় ভিত্তিক বক্তব্যের চাহিদা রয়েছে। পরিচ্ছন্ন ব্যক্তি হিসেবে আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী দেশে বিদেশে সমাদৃত। সর্বোপরি বর্তমান বিএনপিতে যে দুজন অপরিহার্য তাদেরও আস্থাভাজন আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

 

কবে নাগাদ বিএনপির নতুন নির্বাহী কমিটি ঘোষণা হবে জানতে চাইলে দলের জ্যেষ্ঠ নেতা ড. খন্দকার মোশাররফ  বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমকে বলেন, ‘আমি কি তা জানি? কাউন্সিলে ম্যাডামের প্রতি আমরা আস্থা রেখেছি। ম্যাডাম সময় মতো দিবেন। তবে আশা করছি দ্রুত স্থায়ী কমিটি ঘোষণা করবেন।’

কাউন্সিলের পরে মহাসচিব পদে আমির খসরু মাহামুদ চৌধুরীর নাম শোনা যাচ্ছে বিষয়টি নিয়ে মোশাররফরে দৃষ্টি আকষর্ণ করা হলে তিনি বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমকে বলেন, ‘আমি জানি না। ম্যাডামের প্রতি আমরা আস্থা রেখেছি। ম্যাডাম যাকে দেবেন তিনিই কাউন্সিলে নির্বাচিত বিবেচিত হবেন।’

 

 

বি এন আর/০০১৬/০০৩/০০২৯/০০৩৬২৮/এন

মতামত...