,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বিএনপিসহ ৫ দলকে ডেকেছেন রাষ্ট্রপতি

নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে বিএনপি, জাতীয় পার্টি, এলডিপি, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ ও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (ইনু)কে আলোচনার জন্য ডেকেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

আজ সোমবার বেলা তিনটার দিকে রাষ্ট্রপতির প্রেসসচিব জয়নাল আবেদীন গণমাধ্যমে এ তথ্য জানান। ১৮ ডিসেম্বর বিকেল সাড়ে চারটায় বিএনপি, ২০ ডিসেম্বর জাতীয় পার্টি, ২১ ডিসেম্বর এলডিপি ও কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ ও ২২ ডিসেম্বর জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (ইনু)কে ডাকা হয়েছে। বাকি নিবন্ধিত দলগুলোকে পর্যায়ক্রমে ডাকা হবে বলে তিনি জানান।

১৮ নভেম্বর এক অনুষ্ঠানে নির্বাচন কমিশন গঠন ও নির্বাচন সুষ্ঠু করার লক্ষে ১৩ দফা প্রস্তাব উপস্থাপন করেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। প্রস্তাবে তিনি সব দলের সঙ্গে আলোচনা ও ঐকমত্যের ভিত্তিতে সর্বজনশ্রদ্ধেয় বিতর্কমুক্ত ব্যক্তিদের নিয়ে একটি কমিশন গঠনের সুপারিশ করেন। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ওই দিনই বিএনপির প্রস্তাবটি প্রত্যাখ্যান করে।

খালেদা জিয়ার সংবাদ সম্মেলনের পর ওবায়দুল কাদের ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন। ওবায়দুল বলেন, ‘খালেদা জিয়া যে প্রস্তাব দিয়েছেন তা অন্তঃসারশূন্য।’

জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনুও ঢাকার এক অনুষ্ঠানে বলেন, ‘খালেদার প্রস্তাব সংবিধানবিরোধী।’

সংবিধান অনুযায়ী, নির্বাচন কমিশন গঠন করার এখতিয়ার রাষ্ট্রপতির। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে পরামর্শক্রমে তিনি নির্বাচন কমিশনারদের নিয়োগ দিতে পারেন।

আগের রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান সার্চ কমিটির মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠন করেছিলেন। আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে।

মতামত...