,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বিএনপি-জামাতের গায়ে জার্সি বাংলাদেশের ভিতরে পাকিস্তান

zia- kaledaনিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা , বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম::  রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান এবং দলটির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সমালোচনায় মুখর হয়ে ওঠেন সরকার ও বিরোধী দলীয় নেতারা।

বৃহস্পতিবার বিকেলে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে শুরু হওয়া সংসদ অধিবেশনে সমালোচনামুখর আলোচনায় অংশ নেন, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান, সরকারি দলের সংসদ সদস্য মামুনুর রশিদ কিরণ, মাহজাবিন খালেদ ও আক্তার জাহান এবং বিরোধী দল জাতীয় পার্টির মো. নোমান ও নূর-ই হাসনা লিলি চৌধুরী।

বিএনপি-জামায়াতের সমালোচনা করে মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এদের গায়ে জার্সি বাংলাদেশের, কিন্তু ভিতরে পাকিস্তান। যে কারণে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের বিরোধিতা করেন। তাদের কথায় নির্বাচন হবে না। খালেদা জিয়াকে নির্বাচনের জন্য আরও অপেক্ষা করতে হবে।

দেশের অর্থনীতি অনেক বেশি শক্তিশালী দাবি করে তিনি বলেন, এখন আর বাংলাদেশকে কারো ওপর নির্ভর করতে হয় না। রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর আমাদের পোশাক কেউ নেবে না বলা হয়েছিলো। কিন্তু এখনো আমাদের পোশাক রপ্তানি হচ্ছে। অর্থনীতিতে প্রবৃদ্ধি বেড়েছে।

তিনি বলেন, সব সম্ভবের দেশ বাংলাদেশ, যদি নেত্রী থাকেন শেখ হাসিনা। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়ন ও অগ্রগতির যাত্রা কেউ বন্ধ করতে পারবে না। এক্ষেত্রে ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত করে লাভ হবে না।

খালেদা জিয়ার সমালোচনা করে মাহজাবীন খালেদ বলেন, একাত্তরে যুদ্ধের সময় তিনি স্বামীর নির্দেশ না মেনে পাকিস্তান ক্যান্টমেন্টে ছিলেন। যুদ্ধাপরাধী পাকিস্তানি জেনারেলের মৃত্যুতে তিনি শোক প্রকাশ করেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের যেভাবে খাটো করেছেন তাতে তার বিচার হওয়া উচিৎ। খালেদা জিয়া দেশবিরোধী মানুষ। তাই জঙ্গিবাদকে সমর্থন দেন। আর মেজর জিয়া মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিলেও তিনি ছিলেন পাকিস্তানের চর। তার শাসনামলে দেশবিরোধী রাজাকাররা সরকারের গুরুত্বপূর্ণ পদে নিয়োগ পান। খালেদা অনেককে নাগরিকত্ব দিয়েছেন।’ সব রকম অপশক্তির বিরুদ্ধে দেশবাসীকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান মাহজাবীন।

 

বিএন আর/০০১৬০০২০১৮/০০০৯০/বি

 

মতামত...