,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বিদ্যুৎ সচিবের ভাগিনা এবং রাঙামাটি শহরে লোডশেডিং!

mayor-akbar-rangamati

রাঙামাটির পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী

মোঃ সাইফুল উদ্দীন, রাঙামাটি, বিডিনিউজ রিভিউজঃ সম্প্রতি রাঙামাটি শহরে লোডশেডিং এর কারণে অতিষ্ট হয়ে রাঙামাটিবাসী মানববন্ধন করেছে। এই মানববন্ধনে রাঙামাটির পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী বক্তব্যকালে চাঞ্চল্যকর এক তথ্য তুলে ধরেন রাঙামাটিবাসীর সামনে। তিনি জানান, রাঙামাটি কাউখালি উপজেলায় বসবাস করে বিদ্যুৎ সচিবের ভাগিনা।

তার কারণে তিনি প্রভাব দেখিয়ে কাউখালিতে লোডশেডিং দিতে দেয় না বরং সেখানে বিদ্যুৎ এর ঘাটতি হলে রাঙামাটি শহর থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করে দিয়ে কাউখালি উপজেলায় বিদ্যুৎ দিতে হয়।

p

বিদ্যুৎ সচিবের ভাগিনা পরিচয় দানকারি মোঃ সোহেল

পৌর মেয়রের এমন বক্তব্যে রাঙামাটিবাসী গভির ভাবনায় পরে যায়, এমন চাঞ্চল্যকর ঘটনা এত দিন অজানা ছিলো রাঙামাটিবাসীর কাছে।

অবশেষে খোঁজ মিললো এই বিদ্যুৎ সচিবের ভাগিনার। যাকে এলাকার লোকেরাও আড়ালে ‘বিদ্যুৎ সচিব’ বলে ডাকে। তিনি হলেন মোঃ সোহেল। তিনি আজ দীর্ঘ দিন ধরে রাঙামাটি কাউখালি উপজেলায় বসবাস করে আসছে। স্ত্রী, ১ ছেলে, ১ মেয়ে সহ তিনি সেখানে বসবাস করছেন। কাউখালি বাজারে তার একটি দোকান রয়েছে। যা দিয়ে তিনি সংসার পরিচালনা করেন।

মোবাইল ফোনে তার সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমার বাবা ১৯৭৯ সাল থেকে এই কাউখালিতে বাস করে আসছে। আমরাও সে সময় থেকে এখানে আছি। বর্তমানে আমি, আমার স্ত্রী, সন্তান নিয়ে এখানে থাকি। ব্যবসা-বাণিজ্য করে আমি কোন রকম দিন যাপন করছি। তিনি আরো বলেন, আমার নামে যে অভিযোগ উঠেছে সেটা ভূল ও বানোয়াট। আমার মামা বিদ্যুৎ সচিব ‘মনোয়ার ইসলাম’ তিনি সততার সাথে কাজ করছেন। তার মন্ত্রাণালয়ের কর্মকাল প্রায় শেষের দিকে। তিনি এই রকম কোন নির্দেশ দেন নাই। কাউখালিতে একটি সাব স্টেশন রয়েছে, এখানে হাটহাজারি থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ দেওয়া হয়। আমাদের কাউখালিতেও প্রায় সময় বিদ্যুৎ থাকে না। যখন কাউখলিতে বিদ্যুৎ এর সমস্যা হয় তখন রাঙামাটি থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ দেওয়া হয় বলে আমি জানি। এটার জন্য আমার মামা কোন প্রকার সুপারিশ করে নি। রাঙামাটির লাইনে বিভিন্ন প্রকার সমস্যা থাকতে পারে তাই তারা এই রকম অভিযোগ করছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

মতামত...