,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বিশ্বকাপ মিশনের প্রথম ম্যাচে টাইগারদের সামনে নেদারল্যান্ড

t20ঢাকা থেকে ধর্মশালা। প্রচণ্ড গরম থেকে তীব্র শীতে মাশরাফিরা। প্রায় দশ বছর পর ভারতের মাটিতে কোন ম্যাচ খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। একেবারে অচেনা এক পরিবেশে। এশিয়া কাপ শেষ করেই ধর্মশালার বিমান ধরতে হয়েছে টাইগারদের। দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা থাকলেও সময়ের অভাবের কারণে ভেস্তে গেছে সে দুটিও। তাই গতকাল যেটুকু অনুশীলন করতে পেরেছে তাকে পুঁজি করেই আজ বিশ্বকাপ মিশনের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামতে হচ্ছে সাকিব-তামিমদের।

পরিবেশ আর কন্ডিশন অচেনা হলেও আজকের ম্যাচে প্রতিপক্ষ মোটামুটি চেনা। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এবারের আসরের মূল পর্বে সরাসরি খেলছে ৮টি দেশ। টেস্ট খেলুড়ে দেশ হলেও বাছাই পর্ব খেলতে হচ্ছে বাংলাদেশকে। আর সে বাছাই পর্ব দিয়েই আজ বিশ্বকাপ মিশন শুরু টাইগারদের। যেখানে প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ নেদারল্যান্ড। প্রতিপক্ষ হিসেবে ডাচরা একেবারে অচেনা নয় মাশরাফিদের কাছে। যদিও ডাচদের বিপক্ষে মাত্র দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছে টাইগাররা। যার একটিতে জয় আর একটিতে হেরেছে বাংলাদেশ। ২০১২ সালে আয়ারল্যান্ড এবং নেদারল্যান্ড সফরে দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছিল বাংলাদেশ এই নেদারল্যান্ডের বিপক্ষে। যেখানে প্রথম ম্যাচে ৮ উইকেটে জিতলেও দ্বিতীয় ম্যাচে হেরেছিল ১ উইকেটে। দুটি ম্যাচেই হাফ সেঞ্চুরি করেছিলেন তামিম। প্রথম ম্যাচে ৬৯ আর দ্বিতীয় ম্যাচে ৫০।

দুই দিন আগে এশিয়া কাপের ফাইনালে খেলা বাংলাদেশের জন্য আজকের ম্যাচটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটটা তেমন ভাল না খেললেও এবারের এশিয়া কাপে দুর্দান্ত খেলেছে টাইগারার। তাই সে আত্মবিশ্বাসকে পুঁজি করে আজ মাঠে নামছে মাশরাফির দল। প্রতিপক্ষ নেদারল্যান্ডকে নিয়ে তাই ভাবতে চাননা মাশরাফি। তার ভাবনায় কেবলই নিজেদের সেরাটা দেওয়া। অচেনা কন্ডিশনে প্রথম ম্যাচটা উতরাতে চান টাইগার দলপতি। এশিয়া কাপে বাংলাদেশের বোলাররা দারুণ খেলেছে। বিশেষ করে পেসাররা বল হাতে নিজেদের জাত চিনিয়েছে। তবে সে তুলনায় ব্যাটসম্যানরা পারেননি তাদের সেরাটা দিতে। এবার বিশ্বকাপ মিশনে ব্যাটসম্যানদের দেওয়ার পালা। তামিম-সাকিব-মুশফিকদের যে খেলাটা বাকি রয়েছে সেটা বিশ্বকাপেই চান মাশরাফি। বাছাই পর্বে বাংলাদেশের গ্রুপে নেদারল্যান্ড ছাড়াও আয়ারল্যান্ড আর ওমান। ইউরোপের দুই প্রতিপক্ষ নেদারল্যান্ড এবং আয়ারল্যান্ডকেই হারাতে হবে টাইগারদের। নেদারল্যান্ডের বিপক্ষে দুই ম্যাচে জয় আর পরাজয় সমান হলেও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে অবশ্য বাংলাদেশের জয়ের পাল্লাটা অনেক ভারি।

আইরিশদের বিপক্ষে চার ম্যাচের তিনটিতেই জিতেছে বাংলাদেশ। একটি ম্যাচে রয়েছে হার। তাই এই দুই প্রতিপক্ষকে হারাতে পারলেই মিলবে চূড়ান্ত পর্বের টিকিট। গ্রুপের আরেক প্রতিপক্ষ ওমানের বিপক্ষে এখনো কোন ম্যাচ খেলা হয়নি টাইগারদের। এশিয়া কাপে যেটুকু খেলা দেখা হয়েছে মধ্য প্রাচ্যের দেশটির সেটাই অভিজ্ঞতা টাইগারদের জন্য। তবে প্রতিপক্ষ নিয়ে ভাবতে চান না টাইগাররা। এশিয়া কাপের আত্মবিশ্বাসকে পুঁজি করে আজই জয় দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করতে চান মাশরাফি। যদিও শুরুতেই দলে পাচ্ছেন না পেসার মুস্তাফিজকে। তারপরও নেদারল্যান্ডকে হারিয়ে শুভ সূচনা করতে চান মাশরাফি। ভারতের সীমান্ত প্রদেশ ধর্মশালায় এখন রয়েছে বৃষ্টির সম্ভাবনা। আর বৃষ্টি নিয়েই কপালে চিন্তার রেখা মাশরাফির। কারণ বৃষ্টি হলেই পুরো পরিকল্পনা পরিবর্তন করে ফেলতে হবে। তাই কিছুটা হতাশার সুর বেজে উঠল টাইগার দলপতির কণ্ঠে। তারপরও জয় ছাড়া আর কিছু ভাবতে নারাজ মাশরাফি। যত প্রতিপক্ষ আসবে সামনে সবকিছুকে মোকাবেলা করে জয় দিয়েই আজ বিশ্বকাপ মিশন শুরুর প্রত্যয় টাইগার দলপতি মাশরাফির কণ্ঠে।

 

বি এন আর/০০১৬০০৩০০৮/০০০১৪৩/পি

মতামত...