,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

বৈশাখী উৎসব ও লোকজ মেলা’র শুভ উদ্বোধন করলেন মেয়র

cock fightনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন প্রথম বারের মত নগরী’র ঐতিহাসিক লালদিঘী ময়দানে ১৪১৩ বঙ্গাব্দ উদযাপন এবং কবি গুরু ও বিশ্বকবি রবিন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে ৬ মে শুক্রবার থেকে ৩ দিন ব্যাপি আয়োজন করেছে বৈশাখী উৎসব ও লোকজ মেলা। বিকেল ৫ টায় ঐতিহাসিক লালদীঘি মাঠে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও বেলুন উড়িয়ে ৩ দিনের উৎসব শুভ উদ্বোধন করলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন। বৈশাখী উৎসব ও মেলা উদ্বোধনের পর প্যানেল মেয়র, কাউন্সিলর ও চসিক এর কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে মেয়র লোকজ মেলা’র বিভিন্ন ষ্টল পরিদর্শন এবং মোরগ লড়াই উপভোগ করেন। পরে বৈশাখী মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনা সভা। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সমাজকল্যান বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভাপতি, বৈশাখী উৎসব ও লোকজ মেলা আয়োজন কমিটির আহবায়ক এবং ২২ নং এনায়েত বাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. সলিম উল্লাহ বাচ্চু। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন। আলোচনা করেন শিক্ষা ও স্বাস্থ্য বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর নাজমুল হক ডিউক, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন,প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মোহাম্মদ শফিউল আলম, স্বাগত বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সচিব মোহাম্মদ আবুল হোসেন, ধন্যবাদ জ্ঞাপণ করে বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা মিসেস নাজিয়া শিরিন। অনুষ্ঠানে উপস্থাপনায় ছিলেন জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আবদুর রহিম ও প্রভাষক নিশাত হাসিনা শিরিন, মঞ্চে প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, মিসেস জোবাইরা নার্গিস খান, ১৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সায়্যেদ গোলাম হায়দার মিন্টু, ৩১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তারেক সোলায়মান সেলিম, ৩২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জহর লাল হাজারী, ১৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. গিয়াস উদ্দিন, ৩৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, ২৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এইচ এম সোহেল, ৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. সাইফুদ্দিন খালেদ সাইফু,২৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর গোলাম মোহাম্মদ জোবাইর, ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এম আশরাফুল আলম, ৩নং সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিসেস জেসমিন পারভীন জেসি, ৪ নং সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, ৮ নং সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিসেস নিলু নাগ,৫ নং সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিসেস মনোয়ারা বেগম মনি, তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো.মাহফুজুল হক, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ শফিকুল মান্নান সিদ্দিকী,শিক্ষা কর্মকর্তা মো.সাইফুর রহমান, সমাজ কল্যাণ কর্মকর্তা আশেক রসুল চৌধুরী টিপু সহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের উদ্বোধক ও আলোচনা সভার প্রধান অতিথি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, বাঙ্গালির ইতিহাস, ঐতিহ্য, কৃষ্টি ও সভ্যতা এবং সংস্কৃতি লালন-পালন করেই নিজস্ব স্বকিয়তায় এগিয়ে নিতে হবে। অপসংস্কৃতির বিপক্ষে জাতীয় সংস্কৃতির বিকাশ ঘটাতে হবে। তিনি বলেন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নগরবাসীর ট্যাক্সে পরিচালিত একটি সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠান। এই নগরীর ৬০ লক্ষ অধিবাসির সার্বিক স্বার্থ সংরক্ষন করাই এই প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য। মেয়র নগরবাসী’র স্বাচ্ছন্দ জীবন যাপন, আলোকিত ও দৃষ্টি নন্দন পরিবেশ এবং উন্নত জীবন কামনা করেন। তিনি বলেন, তাদের প্রত্যাশা পূরণের জন্য গ্রিন ও ক্লিন সিটি’র ভিশন তুলে ধরা হয়েছে। ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম গ্রিন ও ক্লিন হতে চলেছে। অচিরেই চট্টগ্রাম স্মার্ট ও আধুনিক নগরীতে পরিণত হবে। এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে নগরবাসীর সহযোগিতা অপরিহার্য। মেয়র বলেন, নগরবাসী’র প্রদেয় ট্যাক্সই উন্নয়নের একমাত্র হাতিয়ার। নগরবাসী নিয়মিত ট্যাক্স দেয়ার পক্ষে অথচ বিশেষ একটি মহলকে নগরবাসীর আগ্রহ ও সহযোগিতাকে বাধাগ্রস্থ করার লক্ষ্যে নানামূখি অপপ্রচারে লিপ্ত থাকতে দেখা যায়। যা নগরবাসী কামনা করে না। কারন নগরবাসী জানে তাদের ট্যাক্সের উপর ভিত্তি করেই উন্নয়ন, আলোকায়ন, পরিচ্ছন্ন পরিবেশ, জলাবদ্ধতা নিরসন, শিক্ষা ও স্বাস্থ্যখাতে সেবা পরিচালিত হয়। কোন জনপ্রতিনিধি বা সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারী তাদের ব্যক্তিগত উপার্জিত অর্থ সম্পদ দিয়ে নাগরিক সেবা দেন না। তারা বেতন নিয়ে বিনিময়ে সেবা দিয়ে থাকেন। সুতরাং উন্নয়নের জন্য এবং সেবার জন্য ট্যাক্সের বিকল্প কোন পথ খোলা নেই। যারা স্বেচ্ছায় স্বজ্ঞাণে নাগরিকদের অধিকার থেকে বঞ্চিত করার জন্য বিভ্রান্তি মূলক মিথ্যা তথ্য ও উপাত্ব প্রচার করে বেড়ায় তারা মুলত নগরবাসীর সুন্দর ও উন্নত জীবন কামনা করে না। মেয়র আশা করেন সচেতন সমাজ ও সচেতন নগরবাসী সিটি কর্পোরেশনের পাশে থেকে চট্টগ্রামের কাঙ্খিত উন্নয়নে সহযোগিতা দিয়ে যাবেন। আলোচনা সভা শেষে হিলষ্টার মিউজিক গ্রুপ পাহাড়ী নৃত্য পরিবেশন করেন এবং মরমী শিল্পী শিমুল শীল ও তার দল মরমী গান, চ্যানেল আই বাংলা গানের শিল্পী ইলমা বিনতে বখতেয়ার ও নিশা চক্রবর্তী মনোজ্ঞ সংগিত পরিবেশন করেন। এছাড়াও বিকেল ৩ টা থেকে লালদিঘীর বৈশাখী উৎসবে কাপাসগোলা সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ, জামালখান সিটি কর্পোরেশন কুসুম কুমারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এবং পাঠানটুলি খান সাহেব সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এর শিক্ষার্থী শিল্পীরা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করে।

মতামত...