,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

ভারতীয় গরুর দখলে রাজশাহীর গরুর বাজার

cow-indian1রাজশাহী সংবাদদাতা, বিডিনিউজ রিভিউজঃ রাজশাহী অঞ্চলের সবচেয়ে বড় পশুরহাট সিটিবাইপাস হাটে ভারতীয় গরু আমদানির দৃশ্য ছিল চোখে পড়ার মত। হঠাৎ ভারতীয় গরু-মহিষে সয়লাব হয়েছে মহানগরীসহ জেলার অধিকাংশ পশুরহাট। অথচ কয়েকদিন আগেও সিটিহাটসহ জেলার অন্যান্য গরুরহাটগুলোতে দেশীয় খামারে পালিত গরুর আধিক্য ছিল বেশি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার হঠাৎ মহানগরীর সিটিহাটসহ বিভিন্ন গরুরহাটে ভারতীয় গরুর উপস্থিতি বেড়েছে। তবে হাটগুলোতে ব্যাপক মাত্রায় ভারতীয় গরুর আমদানি বৃদ্ধি পাওয়ায় গরুর দাম কমতির দিকে। শুক্রবার সিটিহাটে কথা হয় ঢাকার জুরাইনের গরু ব্যবসায়ী আমজাদ হোসেনের সাথে।

তিনি বলেন, বরাবরের মতো এবারো রাজশাহী থেকে গরু কেনার জন্য এসেছি। দুই একদিনের মধ্যেই গরুর দাম সীমার মধ্যে আসবে বলে তিনি আশা করছেন। শুধু আমজাদ হোসেন নয়, এমন কথা বলেছেন আরো অনেকে।

সিলেটের গরু ব্যবসায়ী লোকমান আলী বলেন, আজ অথবা কালকের মধ্যেই গরু কিনে সিলেটের হাটে বিক্রি করবো ইনশাল্লাহ।

রাজশাহী সিটি হাটের ইজারাদার আতিকুর রহমান কালু বলেন, আমাদের হাটে প্রথম থেকেই দেশি গরু-ছাগলের উপস্থিতি ভালোই ছিল। কিন্তু ভারতীয় গরু হাটে না আসলে হাট জমবে না। তাই হাটে ভারতীয় গরুর আমদানি শুরু হয়েছে। তিনি আরো বলেন, আগের চেয়ে হাট জমে উঠেছে। ক্রেতা বিক্রেতাদের দর কষাকষির মধ্যে দিয়েই গরুর দাম নির্ধারণ করা হচ্ছে। হাটের নিরাপত্তায় আমরা সবরকম ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।

রাজশাহী মেট্টোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) ব্যবস্থাপনায় ইতোমধ্যে সিটিহাটে জাল টাকা শনাক্তকারী মেশিন স্থাপন করা হয়েছে।

নগরীতে বসবাসরত পুঠিয়া ইসলামিয়া কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল আব্বাস আলী পিন্টু বলেন, গত বৃহস্পতিবার কোরবানির জন্য ৬৪ হাজার টাকায় একটি গরু কিনেছি। কিন্তু আমি কেনার পর হাটে ভারতীয় গরুর ব্যাপক উপস্থিতি দেখছি। ভারতীয় গরুর ব্যাপক আমদানিতে অচিরেই গরুর দাম কমে যাবে বলে মনে করছেন তিনি।

মতামত...