,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

ভুয়া ডাক্তার ১২ বছর ধরে রোগী দেখছেন চট্টগ্রামে

MEDICINঢাকা,০৯ ডিসেম্বর (বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম)::  আজ বুধবার নগরীর বায়েজিদে হাটহাজারী সড়ক এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের কাছে এই লিখিত অঙ্গীকার করেন মেরাজ ফার্মেসির মালিক মো. ইসলাম (৬০)।ওই এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে তিনি রোগীদের ব্যবস্থাপত্র দিয়ে আসছিলেন।

ভুয়া ডাক্তার ও ভেজাল ওষুদের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসনের এই ভ্রাম্যমাণ আদালতের নেতৃত্ব দেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুহুল আমিন।

তিনি বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমকে বলেন, “মো. ইসলাম প্রায় ১০ থেকে ১২ বছর ধরে ওই এলাকায় ডাক্তার সেজে রোগীদের ব্যবস্থাপত্র দিয়ে আসছিলেন। যদিও তিনি তার ডাক্তারির পক্ষে কোনো কাগজপত্র বা সনদ দেখাতে পারেননি।”

মো. ইসলাম তার নেমপ্ল্যাটে ‘এম.ডি.পি.সি ও এক্স.বি.এইচ.এস’ ডিগ্রি ব্যবহার করে আসছিলেন ।

“সনদপত্র দেখাতে না পারায় তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা ও ভবিষ্যতে কোনো ধরনের ব্যবস্থাপত্র না দেওয়ার অঙ্গীকারনামা ওয়া হয়েছে।”

পরে বিক্রয় নিষিদ্ধ সরকারি ওষুধ ও ফিজিশিয়ান স্যাম্পল রাখার অপরাধে বায়েজিদের  আতুরার ডিপো ও কুঞ্জছায়া আবাসিক এলাকার ছয় ফার্মেসিকে ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

কুঞ্জছায়া আবাসিক এলাকার কামাল ফার্মেসিকে ২০ হাজার টাকা, প্রমি ড্রাগ হাউজকে পাঁচ হাজার টাকা ও মোহাম্মদিয়া মেডিকেল হলকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়াও আতুরার ডিপো এলাকার হক ফার্মেসিকে ১০ হাজার টাকা ও জননী মেডিকেল হলকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

মতামত...