,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

মন্তব্য নেই খাদ্যমন্ত্রীর, রিভিউ করবেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

kam-mozammlনিজস্ব প্রতিবেদক,  বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ ঢাকা, আপিল বিভাগের রায়ের পর কোনো প্রতিক্রিয়া জানাননি খাদ্যমন্ত্রী অ্যাড. কামরুল ইসলাম। বিচার বিভাগ ও প্রধান বিচারপতি নিয়ে মন্তব্যের জেরে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে সাত দিনের বিনাশ্রম দণ্ডে দণ্ডিত হন কামরুল।

রোববার দুপুর ১২টার দিকে রায়ের প্রতিক্রিয়া জানতে সচিবালয়ে তার দপ্তরে গেলে কক্ষে প্রবেশের অনুমতি পায়নি সাংবাদিকরা। এসময় একজন কর্মচারী মন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে এসে বলেন, ‘স্যার এ বিষয়ে কোনো বক্তব্য দেবেন না।’

যুদ্ধাপরাধী মীর কাসেম আলীকে নিয়ে বক্তব্য দেয়া নিয়ে আদালত অবমাননার অভিযোগে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেন। অনাদায়ে সাত দিন বিনাশ্রম কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে এই মন্ত্রীকে।

এর আগে ব্রাজিল থেকে পঁচা গম আমদানি নিয়ে ব্যাপাক সমালোচনার মুখে পড়েন খাদ্যমন্ত্রী। এদিকে আদালতের রায়ের পর দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় তার মন্ত্রীত্ব বহাল থানা না-থাকা নিয়ে নিয়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক জানিয়েছেন, আদালতের রায় নিয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই। তবে আমি আদালতের কাছে রায় পুনর্বিবেচনা চেয়ে রিভিউ আবেদন জানাবো।

রোববার (২৭ মার্চ) দুপুরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

সকালে প্রধান বিচারপতি এবং বিচারাধীন বিষয়ে বিরূপ মন্তব্যের মাধ্যমে আদালত অবমাননার দায়ে খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হককে ৫০ হাজার করে জরিমানা করেন সুপ্রিম কোর্ট। তাদেরকে সাতদিনের মধ্যে জরিমানার টাকা ইসলামিয়া চক্ষু হাসপাতাল ও লিভার ফাউন্ডেশনকে দিতে হবে।

জরিমানা অনাদায়ে সাতদিনের কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে দুই মন্ত্রীকে।

নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে আদালত অবমাননার অভিযোগ থেকে অব্যাহতি চেয়ে করা দুই মন্ত্রীর আবেদন নামঞ্জুর করে সর্বোচ্চ আদালত রায় দিয়েছেন, মন্তব্যের মাধ্যমে আদালত অবমাননা করেছেন তারা।

শুনানি শেষে এ রায় দেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ।

 

বি এন আর/০০১৬/০০৩/০০২৭/০০০৪৪৫৫/এস

মতামত...