,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানি সোমবার , ৭ কমিউনিটি সেন্টারে মেজবান

নিউজ  ডেস্ক, বিডিনিউজ রিভিউজ.কম::চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের প্রয়াত সভাপতি এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানি আগামী সোমবার অনুষ্ঠিত হবে। শনিবার বিকেলে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আয়োজিত বিজয় দিবসের আলোচনা সভায় কুলখানির বিষয়ে জানিয়ে মহিউদ্দিনের বড় ছেলে মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, “আগামী ১৮ ডিসেম্বর আমাদের পরিবারের পক্ষ থেকে কুলখানি উপলক্ষ্যে মিলাদ মাহফিল ও মেজবান আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।কিং অব চিটাগাং (কনভেনশন সেন্টার) এর পাশাপাশি সনাতন ধর্মাবলম্বীদের জন্য রিমা কমিউনিটি সেন্টারে কুলখানি ও মেজবানের আয়োজন করা হবে।

এছাড়া নগরবাসী যাতে অংশ নিতে পারে সেজন্য আরও ছয়-সাতটি কমিউনিটি সেন্টারেও আয়োজন রাখা হবে বলে জানান নওফেল।সকাল নয়টায় বাসায় মিলাদের আয়োজন করা হবে ছোট পরিসরে। সেখানে আমার মা, মহিলা নেতাকর্মী ও শুভানুধ্যায়ীরা থাকবেন। কিং অব চিটাগাংয়ে সকাল ১১টা থেকে দলের নেতারা থাকবেন। সেখানে কুলখানি শেষে মেজবান অনুষ্ঠিত হবে।”

মহিউদ্দিন চৌধুরীর ব্যক্তিগত সহকারী ওসমান গনি জানান, কিং অব চিটাগাংয়ের পাশাপাশি কে স্কয়ার, কিশলয়, সুইস পার্ক, স্মরণিকা, এন মোহাম্মদ, কে বি কনভেনশন হল, ভিআইপি ব্যাংকুয়েট, গোল্ডেন টাচ, সাগরিকা কমিউনিটি সেন্টার এবং কমিউনিটি সেন্টারে (অমুসলিমদের জন্য) মিলাদ ও মেজবান অনুষ্ঠিত হবে।

উল্লেখ্য, শুক্রবার ভোরে চট্টগ্রামের ম্যাক্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন মহিউদ্দিন চৌধুরী। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। দীর্ঘদিন ধরে কিডনি সমস্যায় রোগে ভুগছিলেন তিনি। তার মৃত্যুর খবর শুনে শোকের ছায়া নামে চট্টগ্রামে। বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষ তার বাসার সামনে ভিড় করেন। প্রিয় নেতাকে হারিয়ে অনেকেই কান্নায় ভেঙে পড়েন।

১৯৯৪ সাল থেকে টানা তিনবার চট্টগ্রাম সিটির মেয়র নির্বাচিত হয়ে ১৬ বছর দায়িত্ব পালন করেন মহিউদ্দিন চৌধুরী। তার মেয়াদে চট্টগ্রামের সবচেয়ে বেশি উন্নয়ন হয়। এজন্য চট্টগ্রামবাসীর কাছে তিনি ছিলেন জনপ্রিয় নেতা। তার বাসার গলিটি চট্টগ্রামবাসীর কাছে ‘মেয়র গলি’ হিসেবেই পরিচিত।

মতামত...