,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

মহিউদ্দিন চৌধুরী গুরুতর অসুস্থ আজ নেয়া হচ্ছে ভারতের চেন্নাই

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজ.কম:: সাবেক মেয়র, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ এবিএম মহিউদ্দীন চৌধুরী গুরুতর অসুস্থ। রবিবার বিকালে তাঁকে এয়ার এমবুলেন্সে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। এদিকে রবিবার রাতে মহিউদ্দিন–তনয় ব্যারিস্টার নওফেল জানান, মহিউদ্দিন চৌধুরীর অবস্থা স্থিথিশীল।

আজ তাকে চেন্নাই নিয়ে যাওয়া হবে। এর আগে গত শনিবার রাতে বন্দর নগরীর মেহেদীবাগের বেসরকারি ম্যাক্স হাসপাতালে তাঁকে ভর্তি করা হয়েছিল। সেখানে তাকে আইসিইউতে রেখে চিকিৎসা দেয়া হয়।

অসুস্থ শরীরেও গত শনিবার বিকালে নগরীতে মহানগর যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে হাজির হয়ে বক্তব্য রাখেন তিনি। এছাড়া মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা পরিষদের সভায়ও সভাপতিত্ব করেন।

৭৪ বছর বয়সী মহিউদ্দিন চৌধুরী দীর্ঘদিন ধরে হৃদযন্ত্র ও কিডনির জটিলতায় ভুগছেন। মহিউদ্দিনের শারীরিক অবস্থা নিয়ে ম্যাক্স হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. লিয়াকত আলী খান বলেন, উনি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন। আগে থেকে হার্টে বাইপাস করা আছে। উনার কিডনির সমস্যাও আছে। স্কয়ার হাসপাতালে অবস্থানকারী নগর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক ফরিদ মাহমুদ গতরাত ৯টায় পূর্বকোণকে জানান, চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী মহিউদ্দীন চৌধুরীকে ডায়ালাইসিস করা হতে পারে। তিনি জানান, অনেক আগেই চিকিৎসকরা তাকে ডায়ালাইসিসের পরামর্শ দিয়েছিলেন। কিন্তু তিনি তা করাতে সম্মত হননি।

ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে মহিউদ্দীন চৌধুরীকে দেখতে যাওয়া রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহসানুল হায়দর চৌধুরী বাবুল পূর্বকোণকে জানান, সাবেক মেয়রকে হাসপাতালে নেয়ার পর তাকে দেখতে যান বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, প্রেসিডিয়াম সদস্য গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, বন ও পরিবেশ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, ঢাকা দক্ষিণের মেয়র সাঈদ খোকন, সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী আ ফ ম রুহুল হক, এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি, আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীম, এম এ লতিফ এমপি, দিদারুল আলম এমপিসহ অনেক নেতা।

সকাল ১০ টায় নগরীর ম্যাক্স হাসপাতালে এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীকে দেখতে যান চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ আ জ ম নাছির উদ্দীন। এ সময় তিনি সাবেক মেয়রের আশু আরোগ্য কামনা করে আল্লাহর দরবারে দোয়া করেন। এছাড়া সাবেক মেয়র মনজুর আলমসহ শত শত নেতাকর্মী হাসপাতালে জড়ো হন।

ঢাকায় নেয়ার জন্য দুপুর ২টা ৪০ মিনিটে এম্বুলেন্সে করে মহিউদ্দিন চৌধুরীকে এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে নেয়া হয়। তাকে যখন এম্বুলেন্স থেকে স্ট্রেচারে শুইয়ে নামানো হয়, তখন আওয়ামী লীগ নেতা গিয়াস উদ্দিন, মফিজুর রহমান, কাউন্সিলর নীলু নাগ, যুবলীগ নেতা মহিউদ্দিন বাচ্চু, শেখ নাসির হোসেনসহ কয়েকজন নেতা কান্নায় ভেঙে পড়েন। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরাও কাঁদতে থাকেন। এসময় সিনিয়র নেতারা তাদের সান্ত¦না দেন। বিকেল ৩টায় তাকে নিয়ে হেলিকপ্টার ঢাকার উদ্দেশ্যে স্টেডিয়াম ছেড়ে যায়। হেলিকপ্টারে চট্টগ্রাম থেকে মহিউদ্দিন চৌধুরীর সঙ্গে যান ছোট ছেলে বোরহানুল হাসান চৌধুরী সালেহীন। তাঁর বড় ছেলে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী ঢাকায় অবস্থান করছেন।

মহিউদ্দিন চৌধুরীর চিকিৎসকদের একজন অধ্যাপক ডা. নাসির উদ্দিন মাহমুদ বলেন, মৃদু হার্ট এটাক এবং কিডনির সমস্যার কারণে মহিউদ্দিন চৌধুরী অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। হাসপাতালে ভর্তির পর রাত ৩টার দিকে তার অবস্থার অবনতি হয়। তবে সকালে তার অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়।

মহিউদ্দীন চৌধুরীকে ঢাকার নেয়ার প্রাক্কালে স্টেডিয়ামের মূল ফটকের বাইরে অপেক্ষমান ছিলেন শত, শত নেতাকর্মী। তাদেরকে স্টেডিয়ামের ভেতরে প্রবেশ করতে দেয়নি পুলিশ। এরপরও নেতাকর্মীদের ভিড়ে এম্বুলেন্স থেকে মহিউদ্দিন চৌধুরীকে নামিয়ে স্ট্রেচারে করে হেলিকপ্টারে নিতে বেগ পেতে হয়। শেষ পর্যন্ত পুলিশ নেতাকর্মীদের সরিয়ে দিতে বাধ্য হয়।

সাবেক মেয়রকে হেলিকপ্টারে তুলে দিয়ে বিদায় জানানোর সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মো. গিয়াস উদ্দিন, নগর আওয়ামী লীগের শফিক আদনান, শফিকুল ইসলাম ফারুক, আলহাজ এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর পুত্র বোরহান উদ্দিন চৌধুরী সালেহিন, জামাতা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী, মেয়ে লিজাসহ পরিবারের সদস্যবৃন্দ, আওয়ামীলীগ নেতা জামশেদুল আলম চৌধুরী, কাউন্সিলর মো. গিয়াস উদ্দিন, হাসান মুরাদ বিপ্লব, মোরশেদ আকতার চৌধুরী, জহুরুল আলম জসিম, নগর যুবলীগের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চু, নগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এম আর আজিম, সাবেক কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা আবদুল্লাহ আল মামুন চৌধুরী, হেলাল উদ্দিন আকবর চৌধুরী বাবর, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা হাবিবুর রহমান তারেক, নগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান আহমদ ইমুসহ আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, শ্রমিকলীগ ও ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।

সাবেক মেয়রকে ঢাকা প্রেরণের প্রাক্কালে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন সাবেক মেয়রের আরোগ্য কামনায় চট্টগ্রামবাসীসহ সকলের নিকট দোয়া কামনা করেন।

রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল
এক্স কাউন্সিলর ফোরামের উদ্যোগে রবিবার বাদ মাগরিব সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর সুস্থতা কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয় বদনা শাহ (রা.) দরগা মসজিদে। মাহফিলে অংশ গ্রহণ করেন শুলকবহরের সাবেক কাউন্সিলর আহমদুর রহমান সিদ্দিকী, বাকলিয়ার সাবেক কাউন্সিলর মো. শহিদুল আলম, বকশির হাটের সাবেক কাউন্সিলর মুহাম্মদ জামাল হোসেন, জামালখাঁনের সাবেক কাউন্সিলর এডভোকেট এম এ নাসের, ষোলশহরের সাবেক কাউন্সিলর মোহাম্মদ এয়াকুব, পাহাড়তলীর সাবেক কাউন্সিলর নুরুল বশর মিয়া, পাঠানটুলীর সাবেক কাউন্সিলর এ এস এম জাফর, মাদারবাড়ির সাবেক কাউন্সিলর আলী বক্স, মোহরার সাবেক কাউন্সিলর আবু তাহের, এনায়েত বাজারের সাবেক কাউন্সিলর আবদুল মালেক, পূর্ব বাকলিয়ার সাবেক কাউন্সিলর মোহাম্মদ ইছহাক, আগ্রাবাদের জাভেদ নজরুল ইসলাম। বর্তমান কাউন্সিলর জহর লাল হাজারী ছাড়াও আরো উপস্থিত ছিলেন রাজনৈতিক নেতা আবুল মনসুর, মো. এসকান্দর মিয়া, সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, জাফর আহমদ চৌধুরী, মোহাম্মদ ইলিয়াছ প্রমুখ।

বক্সিরহাট ওর্য়াড যুবলীগ : সংগঠনের উদ্যোগে রোগমুক্তি কামনায় মিলাদ ও দোয়া মাহফিল গতকাল (রবিবার) বাদ জোহর খাতুনগঞ্জস্থ হক সুপার মার্কেট দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

মোনাজাত পরিচালনা করেন হক সুপার মার্কেটস্থ এবাদত খানার ইমাম হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ ইউনুছ। উপস্থিত ছিলেন, ৩৫ নং বক্সিরহাট ওর্য়াড আ. লীগের সভাপতি নুরুল আমিন শান্তি সওদাগর, ওর্য়াড আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক আবু মুহাম্মদ ইউছুপ, বক্সিরহাট ওর্য়াড যুবলীগের সভাপতি মান্না বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক আতিক উল্ল্যাহ, ওর্য়াড যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এমদাদুল হক রায়হান, নগর ছাত্রলীগ নেতা ফাহাদ আসিফ, ওমরগণি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা আদুল্লাহ আল নোমান, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ছাত্রলীগ নেতা মো. আদুল্লাহ আল মারুফ, বক্সিরহাট ওর্য়াড যুবলীগ নেতা মো. সালাউদ্দিন, এন.এম.এম.জে ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের আহ্ববায়ক আজমির শাহ্, ওর্য়াড ছাত্রলীগ নেতা নোমান সাঈদ, হোসাইন মোহাম্মাদ আবদুল্লাহ, রকি ভট্টচার্য্য, মো. ফয়সাল, বাকলিয়া হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্ট সুইটমিট শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মিন্টু প্রমুখ।

বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা স্মৃতি পরিষদ : সংগঠনের উদ্যোগে গতকাল বাদ মাগরিব কদম মোবারক জামে মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও রূপালী ব্যাংকের পরিচালক আবু সুফিয়ান, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রিয়াজ হায়দার, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুর রহিম, আন্দরকিল্লা ওয়ার্ড আ. লীগের সহ সভাপতি মঞ্জুর হোসেন, জামালখান ওয়ার্ড যুবলীগের আহবায়ক মো. আইয়ুব, হাফেজ মো. সেলিম উদ্দিন, মাওলানা আবুল কাশেম, হাফেজ মাওলানা মো. ইকরাম হোসেন, মাওলানা আইয়ুব আলী, হাফেজ মঞ্জু, সাংবাদিক চৌধুরী আহসান খুররাম, সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক আসিফ ইকবাল, আবুল হাসান খোকন, সালাউদ্দিন লিটন, কামাল হোসেন, ইমরান হোসেন জুয়েল, সংগঠক এস এম জে রহমান প্রমূখ।

মোনাজাতে সাবেক মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর রোগমুক্তি এবং দীর্ঘায়ু এবং দেশ ও জাতির উন্নতি ও সমৃদ্ধি কামনা করা হয়।

মতামত...