,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

মহেশখালীতে ভাসমান এলএনজি টার্মিনাল নির্মাণে যুক্তরাষ্ট্রের সাথে চুক্তি সই

aনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজঃ  কক্সবাজারের মহেশখালীতে ভাসমান এলএনজি টার্মিনালের নির্মাণ ও ব্যবহার চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। সোমবার বিকেলে রাজধানীর পেট্রোসেন্টারে পেট্রোবাংলা এবং যুক্তরাষ্ট্রের এক্সিলারেট এনার্জির মধ্যে এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব জনেন্দ্র নাথ সরকার, পেট্রোবাংলার সচিব সৈয়দ আশফাকুজ্জামান এবং এক্সিলারেট এনার্জির প্রধান উন্নয়ন কর্মকর্তা ড্যানিয়েল বুসটাস চুক্তিতে সই করেন।

চুক্তি অনুযায়ী ১৮ মাসের মধ্যে টার্মিনাল নির্মাণ সম্পন্ন হবে। ২০১৮ সালের মধ্যেই টার্মিনালটি চালুর পরিকল্পনা রয়েছে। এটি ১ লাখ ৩৮ হাজার ঘনমিটার এলএনজির ধারণ ক্ষমতার। রি-গ্যাসফিকেশন করে দৈনিক ৫০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস পাওয়া যাবে।

তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (লিকুইফাইড ন্যাচারাল গ্যাস বা এলএনজি) আমদানি করে এই টার্মিনালের (এসএসআরইউ) মাধ্যমে সেই গ্যাসকে পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে নেওয়া হবে। সেই গ্যাস পাইপ লাইনের মাধ্যমে গ্রাহকের কাছে সরবরাহ করা হবে। প্রাকৃতিক গ্যাস যে চাপ ও তাপমাত্রায় গ্যাসীয় অবস্থায় থাকে, সেটাকে শীতলকরণ (রেফ্রিজারেশন) প্রযুক্তির মাধ্যমে তাপমাত্রা কমিয়ে ১৬০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নামিয়ে আনলে তা তরলে পরিণত হয়। এই তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাসই হচ্ছে এলএনজি। ৬০০ লিটার গ্যাসকে এলএনজিতে রূপান্তর করে মাত্র এক লিটারের বোতলে রাখা যায়।

প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী, ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শিয়া ব্লুম বার্নিকাট এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 

মতামত...