,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

মাতৃভাষা দিবসেই বাংলা ডোমেইনের যাত্রা শুরু

782নিজস্ব প্রতিবেদক,ঢাকা,৬, জানুয়ারি (বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম):: আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসেই ‘ডটবাংলা’ নামে বাংলা ডোমেইনের যাত্রা শুরু হবে। ২০১৭ সালে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ নামে বাংলাদেশের নিজস্ব স্যাটেলাইট স্থাপন করা হবে। খুব শিগগির কলড্রপের ক্ষতিপূরণ দিতে অপারেটরগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হবে। চলতি বছর ফোর জি চালুর লক্ষ্যে তরঙ্গ নিলাম এবং সারা দেশ থ্রিজির আওতায় নিয়ে আসা হবে।

 

টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বুধবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানিয়েছেন। দুই বছরে মন্ত্রণালয়ের উন্নয়ন কর্মকা- ও ভবিষ্যত কর্মপরিকল্পনা তুলে ধরতে তিনি এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।

 

তিনি বলেন, সবার সমন্বিত প্রচেষ্টায় আমরা ২১ ফ্রেব্রুয়ারি ডটবাংলা নামে বাংলা ডোমেইন চালু করতে পারব। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির মাধ্যমে সার্বজনীন সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ নিরলসভাবে কাজ করছে। আন্তর্জাতিক যোগাযোগ ও ব্রডকাস্টিংয়ের ক্ষেত্রে পরনির্ভরশীলতা কমাতে এবং দুর্গম এলাকায় সেবা বিস্তারে সরকার কক্ষপথে ২০১৭ সালে বাংলাদেশের নিজস্ব স্যাটেলাইট (বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১) স্থাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

 

নতুন বছরে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ সেবার মান উন্নয়ন, সেবাকে সহজলভ্য করা, নিরাপদ ও সম্প্রসারণ- এই চারটি নীতি নিয়ে এগিয়ে যাবে সরকার। তিনি বলেন, সেবার মান উন্নয়নের জন্য অপারেটরদের সঙ্গে কথা বলেছি। কলড্রপ রোধ ও নেটওয়ার্ক সেবার মান বৃদ্ধিতে তাদের বিটিআরসির নির্দেশনা মেনে চলতে হবে৷ অবাঞ্চিত প্যাকেজ বন্ধ করা, কপিরাইট লঙ্ঘন রোধ করা বিভিন্ন বিষয়ে অপারেটরদের নির্দেশনা প্রদান করেছি।

 

চলতি বছরেই ফোরজি চালু করা হবে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘নতুন বছরে ফোরজি চালু করতে পারব। এজন্য তরঙ্গ নিলাম হবে। একই সঙ্গে ২.৫ জি সম্প্রসারণ ও দেশজুড়ে পূর্ণাঙ্গ থ্রিজির আওতায় আসবে ৷

প্রতিমন্ত্রী বলেন, টেলিটেকের বিনিয়োগ অন্যদের তুলনায় অনেক কম। এই স্বল্প বিনিয়োগ নিয়ে প্রতিযোগিতায় যাওয়া আসলে কষ্টকর। তবুও আমরা চেষ্টা করছি। বিদেশি সহযোগিতা বা ঋণের জন্যও চেষ্টা করা হচ্ছে।

 

 

দেশের মোবাইল ফোন ও ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়ছে উল্লেখ করে তারানা হালিম বলেন, ২০১৪ সালে মোবাইল ফোনের গ্রাহক সংখ্যা ১২.০৩৫ কোটি এবং ইন্টারনেট গ্রাহক সংখ্যা ৪.৩৬৪ কোটি ছিল। ২০১৫ সালে মোবাইল ব্যবহারকারী ১৩.২ কোটি এবং ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ৫.৩৯ কোটিতে পৌঁছেছে।

সংবাদ সম্মেলনে ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব মো. ফয়জুর রহমান চৌধুরী, বাংলাদেশ কেবল শিল্প লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার মো. সিরাজুল ইসলাম, বিটিআরসি, টেলিটকসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্র্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

মতামত...