,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

মানিকছড়িতে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অশ্রুসজল নয়নে দুর্গা বির্সজন

mআবদুল মান্নান,মানিকছড়ি(খাগড়াছড়ি),বিডিনিউজ রিভিউজঃ- সনাতন ধর্মবলম্বীদের বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গা পূজা। ষষ্ঠী থেকে বিজয়া দশমী ৫দিন ব্যাপি ব্যাপক আনন্দমূখর পরিবেশে পার্বত্য জনপদ মানিকছড়ির তিনটি মন্ডপে পূজা উদযাপন শেষে আজ বেলা সাড়ে ১২টা থেকে একে একে দুর্গা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হলো শারদীয় দুর্গোৎসব।

গত ৭ অক্টোবর ষষ্ঠী পূজার মধ্য দিয়ে এ বছর দুর্গোৎসব শুরু হয়। মানিকছড়ি উপজেলার ঐতিহ্যবাহী শ্রী শ্রী রাজ শ্যামা কালী মন্দিও, তিনটহরী হরি মন্দির ও দক্ষিণ একসত্যাপাড়াস্থ কালী মন্দিরে এবার অন্যন্ত মনোরম পরিবেশে এবং জাঁকজমকপূর্ণভাবে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দুর্গোৎসব পালিত হয়েছে। প্রতিটি মন্ডপে পূজা উদযাপন কমিটির নিজস্ব স্বেচ্ছাসেবকের পাশাপাশি উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে পুলিশ, আনসার ও ভিডিপি সদস্যদের নিরলস প্রচেষ্ঠায় কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই এবার দুর্গাপূজার সমাপ্তি হলো। মঙ্গলবার বিজয়া দশমীর দুপুরের পর প্রথমে একসত্যাপাড়া মন্দির থেকে দুর্গার বহর নিয়ে ভক্তরা অশ্রুসজল নয়নে উপজেলা সদর হয়ে তিনটহরী আর্ন্তজাতিক ভাবনা কেন্দ্র সংলগ্ন লেকে দুর্গা বিসর্জন দেওয়া হয়। পরে তিনটহরী মন্দির থেকে একই ধরণের বহর নিয়ে ভক্তরা ঢাকঢোল বাঁজিয়ে দুর্গা দেবীকে বিসর্জন দেন। পরে বিকালে উপজেলার ঐতিহ্যবাহী শ্রী শ্রী রাজ শ্যামা কালী মন্দির সংলগ্ন নিজস্ব পুকুরে তারা হাজারো ভক্তের অশ্রুসজল নয়নে এবং দর্শনার্থীদের উপস্থিতিতে দুর্গা দেবী বিসর্জনের মধ্য দিয়ে মানিকছড়িতে সম্পন্ন হলো বাঙ্গালীর শারদীয় উৎসব দুর্গাপূজা।
এবারের দুর্গাপূজাকে সফল করতে প্রতিটি মন্দিরের নিজস্ব স্বেচ্ছাসেবকের পাশাপাশি প্রশাসন নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছিল। ফলে সুষ্টভাবে দুর্গোৎসব সম্পন্ন হওয়ায় মানিকছড়ি সদর পূজা মন্ডপের সভাপতি সজল কান্তি নাথ ও সদস্য সচিব তুষার পাল এবং একসত্যাপাড়া পূজা মন্ডপের সভাপতি বাহাদুর কর্মকার ও সদস্য সচিব নারায়ণ চন্দ্র নাথ সহযোগিতার জন্য মানিকছড়িবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

মতামত...