,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

মার্কিন দূতাবাসের কর্মকর্তা জুলহাজ ও তনয় হত্যায় ৫ জন ‘সনাক্ত’

a নিউজ ডেস্ক, বিডিনিউজ রিভিউজঃ রাজধানীর কলাবাগানে মার্কিন দূতাবাস (ইউএসএআইডি)র কর্মকর্তা জুলহাজ মান্নান ও তার বন্ধু নাট্যকর্মী মাহবুব রাব্বী তনয় হত্যায় সরাসরি জড়িত পাঁচজনকে ‘সনাক্ত’ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন গোয়েন্দারা। দেশে-বিদেশে আলোচিত ওই হত্যাকাণ্ডের তদন্ত সংশ্লিষ্ট মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের এক কর্মকর্তা সূত্রে এ তথ্য জানা যায়। এদিকে সনাক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলেও জানা যায়।

গত ২৫ এপ্রিল বিকালে পার্সেল দেওয়ার কথা বলে কলাবাগানের লেক সার্কাস এলাকায় জুলহাজ মান্নানের বাসায় ঢুকে পাঁচ থেকে সাতজন যুবক তাকে এবং তার বন্ধু তনয়কে কুপিয়ে হত্যা করে। ওই বাড়ির দারোয়ান পারভেজ মোল্লাও হামলার শিকার হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। খুনিরা পালানোর সময় তাদের একজনের কাছ থেকে একটি ব্যাগ ছিনিয়ে রাখেন কলাবাগান এলাকায় নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা এএসআই মমতাজ, যেখানে একটি পিস্তল, একটি দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্র, গুলি ও মোবাইল ফোন পাওয়ার কথা সে সময় জানায় পুলিশ। নিহত জুলহাজ মান্নান (৩৫) সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক দীপু মনির খালাত ভাই। তিনি সমকামীদের অধিকার প্রতিষ্ঠার সাময়িকী ‘রূপবান’ সম্পাদনায় যুক্ত ছিলেন।

অপরদিকে সূত্রে জানা যায়, জুলহাজ-তনয় হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে কুষ্টিয়া থেকে গ্রেফতার আনসারুল্লাহ বাংলা টিম সদস্য শরিফুল ইসলাম ওরফে শিহাবকে জিজ্ঞাসাবাদ করে বেশ কিছু তথ্য নিয়ে কাজ করছে গোয়েন্দা। জুলহাজকে হত্যার জন্য শিহাব খুনিদের অস্ত্র সরবরাহ করেছিল। শিহাব এখন কারাগারে রয়েছে।

প্রসঙ্গত, ঘটনার রাতেই জুলহাজের বড় ভাই মিনহাজ মান্নান ইমন কলাবাগান থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন, যাতে অজ্ঞাতপরিচয় পাঁচ-ছয়জনকে আসামি করা হয়। আর এএসআই মমতাজের ওপর হামলা এবং অস্ত্র পাওয়ার ঘটনায় কলাবাগান থানার এসআই শামীম আহমেদ আরেকটি মামলা করেন।

 

মতামত...