,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

মালয়েশিয়ার সাথে সহযোগিতা বৃদ্ধিতে প্রধানমন্ত্রীর গুরুত্বারোপ

aনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ও মালয়েশিয়ার মধ্যে আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন এবং বিদ্যুৎ ও জ্বালানিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে পারস্পারিক সহযোগিতা বৃদ্ধির ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেছেন, ‘দুটি ভ্রাতৃপ্রতিম দেশের নিজস্ব স্বার্থেই এটি করা প্রয়োজন।’

বাংলাদেশে নবনিযুক্ত মালয়েশিয়ার হাইকমিশনার নূর আশিকিন বিনতি মোহাম্মদ তাইব বৃহস্পতিবার ১৬ জুন  সকালে প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় সংসদ ভবনস্থ কার্যালয়ে তার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে এলে প্রধানমন্ত্রী এ অভিমত ব্যক্ত করেন।

বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের বৈঠকের বিষয়ে অবহিত করেন। বৈঠকে দারিদ্র দূরীকরণে তার সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা দ্রুততার সঙ্গে দেশের উন্নয়ন সাধনের চেষ্টা করে যাচ্ছি।’

পার্শ্ববর্তী দেশের সঙ্গে কানেকটিভিটি উন্নয়ন প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ইতোমধ্যে বাংলাদেশ-ভুটান-ইন্ডিয়া-নেপাল (বিবিআইএন) মোটর ভিহেকেল অ্যাগ্রিমেন্ট সম্পাদন এবং বাংলাদেশ-চীন-ইন্ডিয়া-মায়ানমার (বিসিআইএম) অর্থনৈতিক করিডোর প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এসব উদ্যোগের ফলে আমাদের সামনে পার্শ্ববর্তী দেশ-গুলোসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর সঙ্গে কানেকটিভিটি’র এক নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হয়েছে।’ প্রধানমন্ত্রী এ সময় কানেকটিভি সম্প্রসারণের পাশাপাশি দক্ষিণ এশিয় দেশগুলোর মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্য জোরদার করার ওপরও গুরুত্বারোপ করেন।

বাংলাদেশ ও মালয়েশিয়ার মধ্যে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি, স্বাস্থ্য এবং শিক্ষা খাতে পারস্পারিক সহযোগিতার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘মালয়েশীয় সরকারের সহযোগিতাতেই দেশের মহেশখালিতে বর্তমানে একটি কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের কাজ চলছে।’

বিদ্যুৎখাতে দেশের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘তার সরকারের প্রায় সাড়ে ৭ বছরের শাসনকালে দেশের বিদ্যুৎ উৎপাদনের পরিমাণ ৩ হাজার ২শ’ মেগাওয়াট থেকে বেড়ে বর্তমানে ১৪ হাজার ৭শ’ মেগাওয়াটে উন্নীত হয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রী এ সময় দেশের শিক্ষার্থীদের একটি বড় অংশ মালয়েশিয়ার সরকারি ও ব্যক্তি মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত রয়েছে বলেও হাইকমিশনারকে অবহিত করেন। স্বাস্থ্যসেবাকে জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ায় তাঁর সরকারের উদ্যোগ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এজন্য সারাদেশের ইউনিয়ন পর্যায়ে কমিউনিটি হেলথ ক্লিনিক এবং ইউনিয়ন স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রী এ প্রসঙ্গে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য স্বল্প ব্যয়ে উন্নত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার অংশ হিসেবে রাজধানীর অদূরে মালয়েশিয়ার সহযোগিতায় শেখ ফজিলাতুন্নেসা কেপিজে বিশেষায়িত হাসপাতাল নির্মাণ করার কথাও উল্লেখ করেন।

নবনিযুক্ত মালয়েশিয়ার হাইকমিশনার এ সময় বাংলাদেশ এবং মালয়েশিয়ার মধ্যে বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক এবং পারস্পরিক সহযোগিতাকে উত্তরোত্তর বৃদ্ধিতে কাজ করে যাবার আশাবাদ ব্যক্ত করেন। মালয়েশিয়া হাইকমিশনার দু’দেশের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা সম্প্রসারণের ক্ষেত্র হিসেবে জনপ্রশাসন, প্রশিক্ষণ এবং কৃষিকে চিহ্নিত করে দুটি দেশ এ বিষয়ে নিজস্ব অভিজ্ঞতা বিনিময় করতে পারে বলেও অভিমত ব্যক্ত করেন।

 

মতামত...