,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

মাশরাফির বিরল কীর্তি

ক্রীড়া প্রতিবেদক, ২৬ ডিসেম্বর,বিডিনিউজ রিভিউজ.কম:: বারবার ইনজুরির কবলে পড়ায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যারিয়ার নিয়ে হয়তো আক্ষেপ থেকেই যাবে মাশরাফি বিন মুর্তজার। ক্যারিয়ারের শেষ পর্যায়ে এসে অবশ্য নিজেকে নতুনভাবেই ফিরে পেয়েছেন ডানহাতি এই ক্রিকেটার। তার অধিনায়কত্বেই বাংলাদেশ পেয়েছে অবিস্মরণীয় সব সাফল্য। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের শুরুতে নিজের ব্যক্তিগত অর্জনের ঝুলিটা আরো সমৃদ্ধ করেছেন ওয়ানডে দলের অধিনায়ক। বিরল এক অলরাউন্ড কীর্তিতে বসে গেছেন ওয়াসিম আকরাম, কপিল দেবদের মতো কিংবদন্তিদের পাশে।

মূলত বোলিং দিয়ে নজর কাড়লেও ব্যাট হাতে মাঝেমধ্যেই ঝলসে উঠতে দেখা যায় মাশরাফিকে। সাত-আট নম্বরে ব্যাট করতে নেমে মাঝেমধ্যেই খেলে ফেলেন দুর্দান্ত সব ঝড়ো ইনিংস। এভাবেই ধীরে ধীরে ওয়ানডেতে তার সংগ্রহ দাঁড়িয়ে গেছে ১,৫০৯ রান। সঙ্গে আছে ২১৬টি উইকেট ও ৫১টি ক্যাচ।

মাশরাফির আগে ওয়ানডেতে একইসঙ্গে ১৫০০-র বেশি রান, ২০০-র বেশি উইকেট ও ৫০-র বেশি ক্যাচ ধরার কৃতিত্ব দেখাতে পেরেছেন মাত্র ১০ জন ক্রিকেটার। মাশরাফিও এই অভিজাত ক্লাবে যোগ দেয়ায় যেন পূর্ণ হয়ে গেল একাদশ। উইকেট ও ক্যাচের কোটা আগেই পূর্ণ করেছিলেন ম্যাশ। বাকি ছিল শুধু ১,৫০০ রানের মাইলফলকটি। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শুরু করেছিলেন ১,৪৯৫ রান নিয়ে। প্রথম ওয়ানডেতে ১৪ রান করেই বাংলাদেশের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক বসে গেছেন কপিল-ওয়াসিমদের পাশে।

মাশরাফির আগে এই ক্লাবে নাম লিখিয়েছেন কপিল দেব, ওয়াসিম আকরাম, সনাথ জয়সুরিয়া, ক্রিস কেয়ার্নস, ক্রিস হ্যারিস, চামিন্দা ভাস, শন পোলক, জ্যাক ক্যালিস, ডেনিয়েল ভেট্টরি ও শহীদ আফ্রিদি। বাংলাদেশের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানও খুব দ্রুতই ঢুকে যেতে পারবেন মাশরাফি-কপিল-ওয়াসিমদের এই ক্লাবে। রান ও উইকেটের দিক দিয়ে অনেকের চেয়েই এগিয়ে আছেন সাকিব। অনেক আগেই পূর্ণ করেছেন ১,৫০০ রান ও ২০০ উইকেটের মাইলফলক। কিন্তু পিছিয়ে আছেন শুধু ক্যাচ ধরার হিসেবে। ১৬৪টি ওয়ানডে খেলে সাকিব ধরেছেন ৪০টি ক্যাচ।

মতামত...