,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

‘মিনিস্টার্স অ্যাপার্টমেন্ট’ মন্ত্রীদের জন্য নির্মিত হচ্ছে

js house inনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজঃ মন্ত্রীদের জন্য বেইলি রোডে ‘মিনিস্টার্স অ্যাপার্টমেন্ট’ নামে নতুন একটি ভবন নির্মাণ হচ্ছে।

বুধবার গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বেইলি রোডে এ ভবনের নির্মাণকাজের উদ্বোধন করেন। ছয়তলা এ ভবনে থাকতে পারবেন ১০ জন মন্ত্রী। এটির নির্মাণকাজে ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৭ কোটি ৭৫ লাখ টাকা।

এদিকে বুধবার জাতীয় সংসদে আওয়ামী লীগ দলীয় এমপি ম ম আমজাদ হোসেন মিলনের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ঝিলমিল প্রকল্পে ১৯ এমপিকে প্লট দেওয়া হচ্ছে। এর আগে উত্তরা তৃতীয় পর্বে ৮৩ জনকে ও পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্পে ১৭৪ এমপিকে প্লট দেওয়া হয়েছিল।

পূর্ত বিভাগ জানিয়েছে, মন্ত্রীদের জন্য ভবনের প্রতিটি ফ্ল্যাটের আয়তন হবে ২২৪৮ বর্গফুট। প্রতিটি ফ্ল্যাটে চারটি শয়নকক্ষ, ডাইনিং-ড্রইংরুম ছাড়াও ১৪০০ বর্গফুটের অফিস কক্ষ থাকবে। আসবাবপত্রসহ পরিপূর্ণভাবে এসব ফ্ল্যাট সাজানো থাকবে। দর্শনার্থীদের জন্য আলাদা অপেক্ষাকক্ষ থাকবে। নিচতলায় থাকবে ২৭টি গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা। ভবন নির্মাণে সময় লাগবে দুই বছর।

এ সময় গণপূর্ত মন্ত্রী বলেন, ‘মন্ত্রিসভার সদস্য ও সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য বাসার সংখ্যা খুবই কম। তাই এ ধরনের বাসা নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।’

তিনি জানান, ঢাকায় কর্মরত দেড় লাখের মধ্যে মাত্র আটভাগ কর্মকর্তা-কর্মচারী বর্তমানে আবাসিক সুবিধা পান। ২০১৮ সালের মধ্যে তা ৪০ ভাগে উন্নীত হবে। সরকারি কর্মকর্তাদের জন্য আজিমপুর ও মতিঝিলে ২০ তলাবিশিষ্ট আবাসিক ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য আরও কয়েকটি বহুতল ভবনের নতুন প্রকল্পও নেওয়া হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রণালয়ের সচিব শহীদ উল্লা খন্দকার, গণপূর্ত অধিদফতরের প্রধান প্রকৌশলী হাফিজুর রহমান মুন্সি, মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আখতার হোসেন, প্রধান স্থপতি কাজী গোলাম নাসিরসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে সংসদে নুরুল ইসলাম ওমরের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, যেসব এমপির ঢাকায় থাকার জন্য কোনো জায়গা নেই, তাদের অনুকূলে প্লট বরাদ্দের কোনো সিদ্ধান্ত নেই।

মতামত...