,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

মুক্ত চিন্তা বাক-স্বাধীনতা হরণ করতেই শফিক রেহমান গ্রেফতার

aনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃঢাকা, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, শফিক রেহমান একজন প্রথিতযশা লেখক ও সাংবাদিক। আন্তর্জাতিকভাবেও তিনি পরিচিত। কিন্তু তার মুক্ত চিন্তা ও লেখনীকে থামিয়ে বাক-স্বাধীনতা হরণ করতেই তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

রোববার ৩ টায় শফিক রেহমানের বাসায় গিয়ে তার স্ত্রী তালেয়া রেহমানকে সান্ত্বনা দেন। ধৈর্য্য ধরার অনুরোধ জানান মির্জা ফখরুল।

তিরি বলেন, ‘শফিক রেহমান প্রবীনতম সাংবাদিক ও লেখক। তার লেখা মানুষকে অনুপ্রাণিত করে। সবচেয়ে বড় ব্যাপার হচ্ছে তিনি ভালবাসার জন্য কাজ করেছেন। তিনি এদেশে ভালবাসাকে ছড়িয়ে দিয়েছেন। ভালবাসা দিবসকে জনপ্রিয় করেছেন। এরকম একজন ভালবাসা ছড়িয়ে দেয়া মানুষের বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ দিয়ে গ্রেফতার করা অমানবিক। তার চেয়ে বড় অমানবিক এই বয়সের একজন মানুষকে রিমান্ডে নেয়া।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘তিনি স্পষ্টবাদী। অন্যায়ের বিরুদ্ধে কথা বলতেন। তিনি যা বলতেন সত্য বলতেন। এটাই তার বড় অপরাধ।’

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে যে কোনো মানুষের রাজনৈতিক মত থাকা খুবই স্বাভাবিক। তারও রাজনৈতিক মতবাদ রয়েছে। সংবিধান অনুযায়ী তা অপরাধ হতে পারে না। কিন্তু আজকে যারাই সরকারের ভিন্ন মত পোষণ করছে তাদেরকেই রোষানলে পড়তে হচ্ছে, হয়রানি করা হচ্ছে। গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদের নামে রিমান্ডে নিয়ে অমানবিক নির্যাতন করা হচ্ছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা এসেছিলাম, শফিক রেহমানের স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার জন্য। তিনি নিজেও ডেমোক্রেসির ওয়াচের কর্মকর্তা। গণতন্ত্রের জন্য কাজ করেন। তাকে সান্ত্বনা দেয়া ও ধৈর্য্য ধারণের অনুরোধ করেছি। তার সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করেছি।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সরকারের কাছে জোর দাবি জানিয়ে বলেন, অবিলম্বে শফিক রেহমানের মতো সিনিয়র সিটিজেনের রিমান্ডে নেয়া বন্ধ করা হোক। তার বিরুদ্ধে করা মিথ্যে অভিযোগ বাতিল করে অবিলম্বে মুক্তি দেয়া হোক।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা আব্দুল আওয়াল মিন্টু, আব্দুল্লাহ আল নোমান, মহানগর বিএনপি নেতা আব্দুস সালাম, জি-নাইন এর নেতা সায়ন্ত শাখাওয়াত, খন্দকার আহাদ আহম্মেদ, রুমিন ফারহানা।

মতামত...