,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

মেসিকে আর্জেন্টিনার দলে চান ম্যারাডোনা

Messi maradonaনিজস্ব প্রতিবেদক,  বিডিনিউজ রিভিউজ ডটকমঃ ১৯৯৩ সালে আর্জেন্টিনার হাতে ওঠে কোপা আমেরিকার শিরোপা। এরপর ২৩টি বছর কেটে গেলেও বড় কোনো টুর্নামেন্টের শিরোপা জেতা হয়নি দুবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের।

অথচ ১৯৯৩ সালের পর ৭টি ফাইনাল খেলেছে আর্জেন্টিনা। ৪টি কোপা আমেরিকা, ২টি ফিফা কনফেডারেশন কাপ, ১টি বিশ্বকাপের ফাইনাল। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে শিরোপা ছোঁয়ার সৌভাগ্য হয়নি তাদের।

সর্বশেষ তিন বছরে টানা তিনটি শিরোপা হাতছাড়া হয়েছে আর্জেন্টিনার সুপারস্টার লিওনেল মেসির। ২০০৭ সালেও কোপার শিরোপা হারান মেসি। সোমবার কোপার শতবার্ষিকী আসরে শিরোপা খরা কাটাতে না পারা মেসি দুঃখে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসরের ঘোষণা দেন। তবে আর্জেন্টিনার কিংবদন্তি ফুটবলার দিয়েগো ম্যারাডোনার ইচ্ছে, মেসি অন্তত ২০১৮ বিশ্বকাপ পর্যন্ত খেলুক। তিনি মেসিকে আবেগ তাড়িত হয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবল না ছাড়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

ম্যারাডোনা বলেন, ‘মেসিকে জাতীয় দলে থাকতে হবে। বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হতে তাকে রাশিয়া যেতে হবে। যারা দলকে এগিয়ে নিতে পারবে তাদের ওপর মেসির আস্থা রাখতে হবে। যারা পারবে না তাদেরকে ছেড়ে দিতে হবে।’

২০০৮ ও ২০১০ সালে আর্জেন্টিনাকে কোচিং করিয়েছিলেন ম্যারাডোনা। সে সময়ে আর্জেন্টিনা দলে ছিলেন মেসি। মেসির অবসরে যাওয়াকে আর্জেন্টিনার ফুটবলের ‘বিপর্যয়’ বলে মনে করছেন তার প্রাক্তন বস। ম্যারাডোনা বলেন, ‘যারা বলছে মেসির অবসরে যাওয়া উচিত তারা কিন্তু ভাবছে না মেসি অবসরে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আর্জেন্টিনা ফুটবলের ‘বিপর্যয়’ শুরু হয়ে যাবে।’

আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের উদাসীনতাকে দলটির ‘বিপর্যয়’-এর কারণ মনে করেন ম্যারাডোনা। এজন্য ভক্ত ও সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বিশ্বকাপজয়ী ম্যারাডোনা বলেন, ‘আর্জেন্টিনা ফুটবলে যা হচ্ছে তাতে আমি খুবই দু:খিত এবং রাগান্বিত। আমরা নিচে আঘাত করি কিন্তু আমরাই এখন নিচে পৌঁছে গেছি।’

২৯ বছর বয়সি মেসি ২০০৫ সালে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে জড়ান। এখন পর্যন্ত ১১২টি ম্যাচ খেলেছেন দলটির হয়ে। ৫৫টি গোল করে হয়েছেন আর্জেন্টিনার সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতা। তার বিদায়ে নিশ্চিতভাবেই আর্জেন্টিনার ফুটবল আরো পিছিয়ে যাবে। দলের ক্রান্তিকালে মেসি আবারও জাতীয় দলের জার্সি গায়ে জড়ান কি না, সেটা সময়ই বলে দেবে।

 

মতামত...