,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

‘মেয়র সাহেবের ড্রাইভারের’ সিএনজি আটক!

taxiনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজঃ  পুলিশের হাত থেকে বাঁচার জন্য মেয়রের ড্রাইভারের গাড়ি হিসেবে চলছিল একটি সিএনজি টেক্সি। ট্রাফিক পুলিশও গাড়িটিকে ধরত না। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকের একটি ছবিতে পাল্টে যায় পরিস্থিতি। এতে মেয়রের কার্যালয় তৎপর হয়। এরপর তৎপর হয় পুলিশ। আর ফাঁস হয়ে যায় জারিজুরি।

 মঙ্গলবার নগরীর এ কে খান গেট থেকে ট্রাফিক পুলিশ সিএনজি টেক্সিটি আটক করে। গাড়িটি মেয়রের ড্রাইভারের নয়। নূর মোহাম্মদ নামে এক ব্যক্তি গাড়িটিতে লেখাটি লিখেছিলেন। ওতে লেখা ছিল : ‘মালিক-মাননীয় মেয়র সাহেবের ড্রাইভার (আন্দরকিল্লা) ০১৮৮৩-৬০৬৩২০’।

সিএনজি টেক্সিটির ছবি ফেইসবুকে ছড়িয়ে পড়লে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয় এবং মেয়রের দৃষ্টিগোচর হলে তিনি ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কমিশনার দেবদাস ভট্টাচার্যকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য অনুরোধ করেন। পুলিশ কমিশনার এবং ডিসি ট্রাফিক বিষয়টি নিয়ে নগরীতে চেক পোস্ট করার নির্দেশ দেন। মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে এ কে খান গেট এলাকা থেকে ট্রাফিক সার্জেন্ট আরাফাত টেক্সিটি আটক করেন। নূর মোহাম্মদ নামে এক ব্যক্তি টেক্সিটি চালাচ্ছিলেন। তিনি নিজেই গাড়ির মালিক। তার বাড়ি ঠাকুরগাঁও। নগরীর আসকারদীঘির পাড় এলাকায় থাকেন। গাড়িটির নম্বর চট্টগ্রাম-থ-১১-৮৭৯৭। মফস্বলে চলাচলের জন্য অনুমতিপ্রাপ্ত টেক্সিটি নগরীতে চলাচল নিষিদ্ধ হলেও নিষিদ্ধ রাস্তায় চালানোর জন্যই মূলত তিনি মেয়রের গাড়ি চালকের নাম ব্যবহার করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, মেয়রের গাড়ি চালকের সাথে তার পরিচয় নেই। পুলিশ গাড়িসহ তাকে আটক করে থানায় সোপর্দ করেছে।
মেয়রের ব্যক্তিগত সহকারী রায়হান ইউসুফ মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, এই ধরনের কোনো গাড়ি মেয়রের ড্রাইভারের নেই। পুলিশকে বিভ্রান্ত করার জন্য অভিনব এই পন্থা। নগরীতে বিখ্যাত মানুষদের নামে আর কোনো সিএনজি টেক্সি চলাচল করছে কিনা তা খুঁজে দেখতে পুলিশকে জানানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

মতামত...