,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

কর্ণফুলী নদীর ওপর রেল কাম সড়ক সেতু হবে:ভূমি প্রতিমন্ত্রী

aস্টাফ রিপোর্টার, বিডিনিউজ রিভিউজঃ ব্যানারে বঙ্গবন্ধুর ছবি ছোট করে দিয়ে মোছলেম উদ্দিন আহমদের ছবি বড় করে দেওয়ার বিষয়টি চোখে পড়ার পর সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের তীব্র সমালোচনা করেছিলেন। ২১ আগস্টের ওই অনুষ্ঠানের পর এবার মোছলেম উদ্দিনের সমালোচনা করলেন ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ।

 আজ শুক্রবার ২৬ আগস্ট সন্ধ্যায় বোয়ালখালী উপজেলা পরিষদ চত্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪১তম শাহাদতবার্ষিকী উপলক্ষে পৌর আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন ভূমি প্রতিমন্ত্রী।

মোছলেম উদ্দিনকে ইংগিত করে ভূমি প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর আর্দশ যারা বুকে ধারণ করে তাদের রাজনীতি ও ব্যক্তিজীবনে সমস্যা হবে না। এ বোয়ালখালীতে মরহুম সিরাজুল ইসলাম, আবদুস সোবাহান, সাংসদ মঈন উদ্দিন খান বাদল, আবুল কালামসহ স্বনামধন্য বহু ব্যক্তির জন্ম হয়েছে। তেমনি কলংকিত ব্যক্তির জন্মও হয়েছে।

দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ যখন গঠিত হয় তখন দলকে সুসংগঠিত করবে এ আশায় বুক বেঁধে ছিলাম আমরা। অথচ মনোনয়ন বাণিজ্য, টাকা নিয়ে পদবি দেওয়ার বাণিজ্য করার অভিযোগ আছে দক্ষিণ জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে। একসময় দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগকে নিয়ে গর্ব হতো। আজ দক্ষিণ জেলার রাজনীতিকে ধ্বংস করেছেন তিনি। সে ব্যক্তির বিরুদ্ধে সোচ্চার হোন।

তিনি দলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, লোভী ব্যক্তি নিজের স্বার্থে শত্রুদের সাথে হাত মেলান। মানুষ জানে আওয়ামী লীগ সবার, কোনো ব্যক্তির নয়। আপনারা কাজ করে যান। আমি রাজনীতিতে নতুন নই। যারা আমাকে নতুন বলেন, তাদের উদ্দেশে বলছি, ১৯৯৩ সালে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে রাজনীতি শুরু করেছিলাম আমি। আমি পরিবর্তন, নতুনত্বের জন্য রাজনীতিতে এসেছি। কেউ যদি আমার সরলতাকে দুর্বলতা মনে করেন তাহলে ছাড় দেব না।

তিনি বলেন, পরিবর্তনের সময় এসেছে। রাজনীতি করি কর্মীদের সন্তুষ্ট করার জন্য। কিছু লোক আছেন যারা নিজেদের পকেট ভারী করার জন্য রাজনীতি করেন।

কালুরঘাট সেতু ব্যাপারে ভূমি প্রতিমন্ত্রী বলেন, এ সরকারের আমলে চট্টগ্রামে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে যা আগের ইতিহাসে কখনোই হয়নি। আমি আশ্বস্ত করতে চাই, কর্ণফুলী নদীর ওপর রেল কাম সড়ক সেতু হবে ইনশাআল্লাহ। এটা প্রধানমন্ত্রীর নজরে আছে। আমি প্রধানমন্ত্রীকে এ বিষয়ে বলেছি ও বলব।

সভায় পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মো. জাকারিয়ার সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহ্বায়ক এমএস আলমের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আবদুল কাদের সুজন, উপজেলা আওয়ামী লীগের একাংশের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আহম্মদ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা এসএম সেলিম, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ড হারুন মিয়া, উপজেলা জাসদ সভাপতি মনছফ আলী, আনোয়ারা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান তৌহিদুল হক, চান্দগাঁও থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট সমীর কান্তি, আবদুল ওয়াদুদ ও রিদুয়ানুল হক টিপু।

মতামত...