,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

মোদির ২ বছর ভারতে ২ কোটি টয়লেট

aনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজঃ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, তার সরকার ক্ষমতায় আসার পর জনস্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে দুই কোটি টয়লেট বানানোর পাশাপাশি হাজার হাজার গ্রামে পৌঁছে দিয়েছেন বিদ্যুৎ। দেশটির স্বাধীনতা দিবসের ভাষণে এ কথা জানান মোদি।

সোমবার দিল্লীর লালকেল্লা থেকে দেয়া এক ভাষণে মোদি বলেন, ভারতের প্রত্যেক ঘরে ঘরে টয়লেট ও বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়ার অঙ্গীকার বাস্তবায়নে তার সরকারের কাজ করছে।
২০১৪ সালের ১৫ আগস্টের ভাষণে তিনি চার বছরের মধ্যে প্রত্যেক বাড়িতে একটি করে টয়লেট নির্মাণের অঙ্গীকার করেছিলেন।

মোদি তুমুল হর্ষধ্বনির মধ্যে তার ভাষণে বলেন, ‘আজ আমি বলতে পারি অল্প সময়ের মধ্যে ভারতের বিভিন্ন গ্রামে দুই কোটি টয়লেট নির্মাণ করা হয়েছে এবং ৭০ হাজারেরও বেশি মানুষকে আর উন্মুক্ত স্থানে মলত্যাগ করতে হয় না ।

ইউনিসেফের তথ্যানুযায়ী, ভারতে উন্মুক্ত স্থানে মলত্যাগ দীর্ঘদিন ধরে স্বাস্থ্য ও স্যানিটেশনের একটি বড় সমস্যা হিসেবে চিহ্নিত। দেশটির ৫৯ কোটি ৪০ লাখ অর্থাৎ মোট জনসংখ্যার অর্ধেক খোলা জায়গায় মলত্যাগ করে।

২০১৪ সালে ক্ষমতায় আসার পর মোদি স্বচ্ছ ভারতের প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেন এবং ডায়রিয়ার মত রোগব্যাধির বিস্তার বন্ধে প্রত্যেক বাড়িতে একটি করে টয়লেট স্থাপনের জন্য বারবার আহ্বান জানান।

গতবছরের ভাষণে মোদি ভারতের প্রত্যেক গ্রামে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়ার জন্য এক হাজার দিনের একটি সময়সীমা নির্ধারণ করেন।

মোদি তার ভাষণে বলেন, ‘আমরা স্বাধীনতার ৭০ বছরের কাছাকাছি। কিন্তু দরিদ্র গ্রামগুলোতে এখনও বাসিন্দারা ১৮ শতকের অবস্থার মত বসবাস করছেন। তবে আমি অসম্ভবকে সম্ভব করার অঙ্গীকার করছি।’

তিনি বলেন, ‘আমি আজ গর্ব করে বলছি, আমার এক হাজার দিনের সময়সীমার অর্ধেকও এখনও শেষ হয়নি। অথচ আমরা ১৮ হাজার গ্রামের মধ্যে ১০ হাজার গ্রামে ইতোমধ্যে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিয়েছি।’

 

মতামত...