,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

যশোর মেডিকেল কলেজ অবশেষে নিজস্ব ক্যাম্পাসে অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম চালু

jmcআনোয়ার হোসেন লিখন,যশোর সংবাদদাতা,বিডিনিউজ রিভিউজঃ অনেক জল্পনা কল্পনা ও প্রতীক্ষার পর নিজস্ব ক্যাম্পাসে অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম শুরু করেছে যশোর মেডিকেল কলেজ (যমেক। সাড়ে পাঁচ বছর অস্থায়ী ভাবে যশোর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে কার্যক্রম চালিয়ে ১৬ জুলাই ৪র্থ ও ৫ম বর্ষের প্রফশনাল চূড়ান্ত পরীক্ষায় ৮১ জন শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণের (ইয়ার ফাইনাল) শুরু হয়েছে। কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. আবু হেনা মো. মাহাবুব উল মওলা চৌধুরী এসব তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। এছাড়াও একাডেমিক কার্যক্রম আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনে এখনো কিছুদিন সময় লাগবে বলে জানান।
জানা গেছে, কলেজের ৪র্থ বর্ষেও ফার্মাকোলজি ও ৫ম বর্ষেও ও মেডিসিন প্রফেশনাল চূড়ান্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এই দুই পরীক্ষায় মোট ৮১ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করার কথা রয়েছে। এর মধ্যে ৪র্থ বর্ষে ৬১ জন এবং ৫ম বর্ষে ২০ জন শিক্ষার্থী আছেন। এর মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীরা তাদের কাক্সিক্ষত ক্যাম্পাসে পা দিতে পারছেন। ইতিমধ্যে কলেজের সব আসবাবপত্র অস্থায়ী ক্যাম্পাস থেকে নিজেদের ভবনে নেয়া হয়েছে। সেপ্টেম্বরের শুরু থেকে ১ম বর্ষসহ সব ক্লাস নিজস্ব ভবনে শুরু হবে বলে জানা গেছে। সবকটি ক্লাসরুম সাজানো হয়েছে আধুনিক প্রযুক্তিতে। জুলাই মাসে কলেজের ছেলে শিক্ষার্থীরা হোস্টেলে উঠেছেন। মেয়েরা এখনো আসার অপেক্ষায়। জানা যায়,২০১০ সালের ১০ সেপ্টেম্বর যশোর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের অস্থায়ী ক্যাম্পাসে ৫৩ জন ছাত্র/ছাত্রী নিয়ে অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম শুরু হয় যশোর মেডিকেল কলেজের। বর্তমানে হাসপাতালটি ইন্টার্নসহ পাঁচটি ব্যাচে তিনশ শিক্ষার্থী রয়েছে। যশোর শহরের শংকরপুরের ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের পাশে হরিণা এলাকার বিলে ২৫ একর জমির উপর প্রায় ৭০ কোটি টাকা ব্যয়ে ৫শ’ শয্যাবিশিষ্ট এ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল নির্মাণ করা হয়েছে। মন্ত্রী মহাদয়ের দেয়া সময়ের মধ্যেই আনুষ্ঠানিকভাবে এ কলেজের উদ্বোধন করা হবে বলে জানিয়েছেন।

মতামত...