,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

রবি শাস্ত্রীর মুস্তাফিজ ভীতি!

kক্রীড়া প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম::ঢাকা: বাংলাদেশে খেলতে এসে এক মুস্তাফিজের কাছেই নাস্তানুবাদ হতে হয়েছিলো গোটা ভারতীয় দলকে। আর সে সময় ভারতের ক্রিকেট দলের কোচ ছিলেন বর্তমানে একই দলের পরিচালক পদে থাকা রবি শাস্ত্রী। তারপরও তিনি নাকি মুস্তাফিজকে চিনেন না। তার কথায় মনে হয়েছে মুস্তাফিজ নাম যেন এর আগে শোনেননি।

 

তিন ম্যাচে নিয়েছিলেন ১৩ উইকেট। দুইবার পাঁচ বা এর চেয়ে বেশি শিকার। অভিষেক সিরিজে সবচেয়ে বেশি উইকেট নেয়ার বিশ্বরেকর্ড। ক্যারিয়ারের প্রথম দুই ম্যাচেই পাঁচটি বা এর চেয়ে বেশি উইকেট। এ সব কীর্তিই বাংলাদেশের বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজের। সেটাও ভারতের বিপক্ষে। ২০১৫ সালে মুস্তাফিজের এই কীর্তির সময় ভারতের কোচ ছিলেন রবি শাস্ত্রি। তারপরও মুস্তাফিজকে ভুলে গেছেন তিনি!

 

আজ থেকে শুরু হচ্ছে এশিয়া কাপ। প্রথম দিনই মাঠে নামবে ভারত- বাংলাদেশ। এই ম্যাচের আগে রবি শাস্ত্রিকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিলো, মুস্তাফিজ কী ধরনের প্রভাব ফেলতে পারেন।

 

জবাবে সবাই কে অবাক করে দিয়ে শাস্ত্রি বলেন, ‘মুস্তাফিজটা আবার কে?’

 

আসলেই কি মুস্তাফিজকে মনে নেই শাস্ত্রির? নাকি আগের যন্ত্রণাটা ভুলতেই মুস্তাফিজকে ভুলে থাকার কৌশল নিচ্ছেন তিনি? সেটা যাই হোক, মুস্তাফিজ যে শাস্ত্রির মনে দারুণ একটা দাগ ফেলে রেখেছেন, তা বোঝা গেছে তার পরের কথায়।

 

শাস্ত্রি বলেন, ‘দেখুন মুস্তাফিজ যা করেছে, তা আট মাস আগের কথা। এর মধ্যে অনেক সময় কেটে গেছে। আমার কথা সেভাবে মনে থাকে না। আপনি আমাকে জিজ্ঞেস করতে পারেন গত দুই মাসের কথা বা এর চেয়ে কম সময়ের কথা। এখন ভারতীয় দল কেমন খেলছে, আপনি সে কথা জানতে চাইতে পারেন আমার কাছে।’

 

অবশ্য বাংলাদেশের প্রশংসাও করেছেন ভারতীয় দলের এই পরিচালক। তিনি বলেন, ‘আমি তো ৯০-এর দশক থেকেই বাংলাদেশে আসছি। এখানকার ক্রিকেটের উত্থানটা ঘটেছে আমার সামনেই। বিশেষ করে গত কয়েক বছরে বাংলাদেশ দল হিসেবে দাঁড়িয়ে গেছে।’

 

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশকে এখন আর কোনো দল হালকাভাবে নিতে পারবে না। প্রতিটি দলেরই এখন উচিত বাংলাদেশকে সমীহ করা। ভারতও এর ব্যতিক্রম নয়।

 

বি এন আর/০০১৬০০২০২৩/০০০১৪২/এন

মতামত...