,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

রাউজান সংবাদঃ নোয়াপাড়ায় বিধস্ত সড়ক মেরামত করছেন চেয়ারম্যান দিদার

aএম বেলাল উদ্দিন, রাউজান ,বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ রাউজানের নোয়াপাড়ায় ঘুর্নিঝড় রোয়ানোর তান্ডবে বিধস্ত সড়ক মেরামত করার কাজ করছেন স্থানীয় চেয়ারম্যান আলহাজ্ব দিদারুল আলম ।ঘুর্নিঝড় রোয়ানোর তান্ডবে রাউজানের নোয়াপড়া ইউনিয়নের কচুখাইন এলাকার বিধস্ত সড়ক মাটি দিয়ে ও খুটি গেড়ে হালকা যানবাহন চলাচলের উপযোগী করার কাজ করছেন স্থানীয় চেয়ারম্যান আলহাজ্ব দিদারুল আলমের অর্থায়নে। নোয়াপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব দিদারুল আলম জানান, রোয়ানোর তান্ডবে বিধস্ত সড়কগুলো মোরমতের জন্য সরকারী কোন বরাদ্ব এখনো পাওয়া যায়নি । এলাকার লোকজনের চলাচলের দুর্ভোগ লাঘব করতে তিনি নিজের টাকা দিয়ে বিধস্ত সড়ক মাটি দিয়ে ও গাছের খুটি পুতে হালকা যানবাহন চলাচলের উপযোগী করে দিচ্ছে । সরকারী বরাদ্দ পেলে বিধস্ত সড়কের সম্পুন মেরামতের কাজ করা হবে বলে জানান স্থানীয় চেয়ারম্যান আলহাজ্ব দিদারুল আলম । গত শনিবার সকালে স্থানীয় চেয়ারম্যান আলহাজ্ব দিদারুল আলম স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের অর্থায়নে রাউজানের নোয়াপাড়া করম আলী সড়কের ব্রীক সলিংয়ের কাজ পরিদর্শন করেনম। এসময়ে আরো উপস্থিত ছিলেন শ্রমিক লীগ নেতা সেকান্দর হোসেন।

রাউজানে ইয়াবা বিক্রির
সময় দুই ব্যক্তি আটক
এম বেলাল উদ্দিন রাউজান ,বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ চট্টগ্রামের রাউজানে দুই ইয়াবা ব্যবসায়ীকে ধরে পুলিশে দিয়েছে জনতা। গতকাল বুধবার রাতের সাহ্রীর আগে গোপনে ইয়াবা প্রচারের সময় স্থানীয় জনতা দেখতে পেলে তাদের হাতে নাতে ধরে পুলিশকে খবর দেয়। এসময় পুলিশ এসে তাদের আটক করে। পরে স্বীকারোক্তি মতে ৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করে তাদের বাড়ী তাল¬¬াশী করে। আটককৃরা হলো উপজেলার নোয়াপাড়ার ছামিদর কোয়াংয়ের বাসিন্দা জসিম উদ্দিন (৪০) ও কচুখাইন গ্রামের মামুন (২৫)। স্থানীয় মেম্বার ও এলাকাবাসি জানায়, গত বুধবার রাতে ছামিদর কোয়াং গ্রামে তারা দুইজন সাহ্রীর আগে ইয়াবা বিক্রির জন্য ট্যাবলেট গুলো নিয়ে যাচ্ছিলো। এসময় স্থানীয় লোকজন বিষয়টি টের পেলে তাদের আটক করে থানা পুলিশকে খবর দেয়। এসআই সাইমুলের নেতৃত্বে একদল পুলিশ এসে তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়। বৃহষ্পতিবার তাদের বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলার পর কোর্টে প্রেরণ করেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

রাউজানে শিক্ষার্থী তারেকের নিজ উদ্যোগে
সড়কের পার্শ্বে ১হাজার ৮শত তালগাছ রোপন
এম বেলাল উদ্দিন, রাউজান থেকে , বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ রাউজানে কলেজ শিক্ষার্থী তারেক aসড়কের পার্শ্বে ১হাজার ৮শত তালগাছ রোপন করেছেন। রাউজান উপজেলার ৭ নং রাউজান ইউনিয়নের পুর্ব রাউজান মনোহর আলী চৌধুরীর বাড়ীর বাসিন্দা ডাঃ নুর মোহাম্মদের পুত্র মোঃ তারেক রহমান তার বাড়ীর সামনের পুকুরের পাড়ে তালগাছ থেকে পাকা তাল সংগ্রহ করে তালের রস খাওয়ার পর তালের বিচি স্বযতেœ রেখে দিয়ে ঐ তাল বিচি সুলতানুল আউলিয়া সড়কের পার্শ্বে মনোহর আলী চৌধুরী সড়কের পার্শ্বে শাওন খালিফার বাড়ী সড়কের পার্শ্বে রোপন করে আসছে দশ বৎসর ধরে। মোঃ তারেক রহমান এর রোপন করা তাল গাছের মধ্যে কিছু কিছু তাল গাছ সড়কের পার্শ্বে মাথা ছাড়া দিয়ে উঠেছে। অধিকাংশ তালগাছের চারা সড়কের পার্শ্বে উঠৈছে। মোঃ তারেক রহমান তাল গাচ ছাড়াও সড়কের পার্শ্বে মসজিদ, মার্দ্রসার আঙ্গিনায় আম, কাঠাল, লিচু, পেয়ারা, গোলাপজাম, আপেলকুল, আনার, জলপাই, সপেদা, আমড়া পেপেঁ গাছের চারা রোপন করেছেন। মোঃ তারেক রহমান ফলজ গাছের কলম করার কাজও করেন।
মো ঃ তারেক রহমান এই প্রতিনিধিকে বলেন রাউজান আর্যমৈত্রেয় ইনষ্টিটিশনে লেখপাড়া করার সময় খেয়াল করি দেশ থেকে তাল গাছ বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে। এই তাল গাছকে বংশ বিস্তার করার লক্ষ্যে সড়কের পার্শ্বে তাল গাছ রোপন করা শুরু করেন। মোঃ তারেক রহমান টিউশনী করে যে টাকা আয় করতো তা দিয়ে সড়কের পার্শ্বে তাল গাছ সহ অন্যান্য প্রজাতির গাছের চারা রোপন করার কাজে ব্যয় করতো। মোঃ তারেক রহমান এর এই প্রশংসনীয় কর্মকান্ডের সংবাদ পেয়ে রেলপথ মন্ত্রনালয় সর্ম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি মোঃ তারেক রহমানকে ডেকে নিয়ে সড়কের পার্শ্বে তাল গাছ সহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছের চারা রোপন করার জন্য তাকে আর্থিক সহায়তা দিয়ে উৎসাহ প্রদান করেন।
রেলপথ মন্ত্রনালয় সর্ম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপির সহায়তায় রাউজানের প্রতিটি এলাকায় সড়কের পার্শ্বে তাল গাছের চারা রোপন করার পরিকল্পনা নিয়েছেন বলে জানান মো ঃ তারেক। রাউজান বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে এস এস সি পাশ করে অনার্সে ভতি হয়েছে মো তারেক। সড়কের পার্শ্বে তাল গাছ ও বিভিন্ন প্রজাতির গাছের চারা রোপন ও পরিচর্যা করায় মোঃ তারেক রহমানকে সম্মানের চোখে দেখেন এলাকার লোকজন। পুর্ব রাউজান এলাকার বাসিন্দা নুরুল আলম জানান মোঃ তারেক রহমান সড়কের পার্শ্বে গাছের চারা রোপন করে এলাকার মানুষকে বৃক্ষরোপন করার জন্য উদ্ভোদ্ধ করেছেন। একসময়ে রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় পুকুর পাড় দিঘীর পাড় সড়কের পার্শ্বে বসত ভিটায় স্কুল কলেজ মার্দ্রসার আঙ্গিনায় তাল গাছ ছিল প্রচুর পরিমাণ। গ্রীস্মকালে তাল গাছ থেকে কাচাঁ তাল পেরে গাছের মালিকেরা ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রয় করেন। ব্যবসায়ীরা তাল কিনে নিয়ে রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় ও রাঙ্গামাটি, চট্টগ্রাম শহরে নিয়ে গিয়ে লোকজনের কাছে বিক্রয় করেন। এবৎসর একটি তাল ১৫ টাকা থেকে ২০ টাকা করে বিক্রয় করেন। বর্ষার মৌসুমে বাংলা নববর্ষের শ্রাবন, ভাদ্র মাসে তাল গাছের তাল পাকা শুরু করে। পাকা তাল সংগ্রহ করে পাকা তালের রস দিয়ে তাল পিঠা, সহ বিভিন্ন ধরনের পিঠা তৈয়ারী করেন এলাকার লোকজন। প্রতিটি পাকা তাল বাজারে ৫০ থেকে ৮০ টাকা করে বিক্রয় করা হয়। তাল গাছে বাবুই পাখীরা বাসা বেধেঁ বসবাস করেন বাবুই পাখীরা। কালের বির্বতনে রাউজানে তাল গাছ কেটে সাবার করে দিয়েছে এলাকার লোকজন। রাউজানের কিছু কিছু এলাকায় এখনো তাল গাছ দেখা যায়। পুর্ব রাউজানের মোঃ তারেক রহমান আরো বলেন, দেশ থেকে বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া তাল গাছের বংশ বিস্তার করার জন্য সড়কের পার্শ্বে এক হাজার আটশত তাল গাছের চারা রোপন করেছি। চট্টগ্রাম উত্তর বন বিভাগের আওতাধিন রাউজান ঢালার মুখ বন বিভাগীয় পরিক্ষন ফাড়িঁর অফিসার আবদুল রশিদ বলেন পুর্ব রাউজানের মোঃ তারেক রহমান সড়কের পার্শ্বে তাল গাছ ও বিভিন্ন প্রজাতির গাছের চারা রোপন করে এলাকার মানুষকে বৃক্ষরোপনে উদ্ভোদ্ধ করছেন তা প্রশংসনীয় কাজ

মতামত...