,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

রাঙ্গামাটিতে অত্যাধুনিক বিস্ফোরকসহ পিতা-পুত্র আটক

রাঙ্গামাটি সংবাদদাতা,১ এপ্রিল, বিডিনিউজ রিভিউজ.কম: রাঙ্গামাটিতে যৌথবাহিনী অভিযান চালিয়ে গতকাল অত্যাধুনিক বিস্ফোরকসহ পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ পিসিপির দুই নেতাকে আটক করেছে। এরা হলেন কাপ্তাই উপজেলার রাইখালী ইউনিয়ন পরিষদের ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার ও জেএসএসের ইউনিয়ন সভাপতি থোয়াই সুইনু মারমা (৪৩) ও জেএসএসের ছাত্র সংগঠন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কাপ্তাই উপজেলা সভাপতি কহিংহলা মারমা (২২)। সম্পর্কে তারা পিতা-পুত্র।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কাপ্তাই সার্কেল) মো. আসলাম ইকবাল জানান, শুক্রবার ভোর ৬টায় কাপ্তাই উপজেলার রাইখালী ইউনিয়নের নারায়ণগিরি গ্রামে একটি বাসা থেকে এ দুজনকে আটক করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী জানায়, রাঙ্গামাটিতে জেএসএস নাশকতার পরিকল্পনা করছেণ্ডএমন তথ্যের ভিত্তিতে সম্প্রতি সন্ত্রাস বিরোধী বিশেষ যৌথ অভিযান শুরু করা হয়। এর প্রেক্ষিতে গত বৃহস্পতিবার চন্দ্রঘোনা থানার জেএসএসের চাঁদা কালেক্টর মায়াধনকে আটক করে যৌথবাহিনী। মায়াধনকে জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল ফের উপজেলার রাইখালীতে একাটি বাসায় অভিযান চালিয়ে জেএসএস ও পিসিপি নেতা পিতা-পুত্রকে আটক করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে বিদেশে তৈরি চারটি অত্যাধুনিক বিস্ফোরক পাওয়া যায়। তবে এসব বিস্ফোরকের নাম জানাতে পারেনি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।
আটক থোয়াই সুইনু মারমা জিজ্ঞাসাবাদে জানান, তিনি ইতোপূর্বে বেশ কয়েকবার জনসংহতি সমিতির সশস্ত্র গ্রুপের কাছে অস্ত্র ও গোলা বারুদ পাচার করেছেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আটক পিতা-পুত্র জানান, তাদের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া একই ধরনের ২০টি বিস্ফোরক দুদিন আগে বান্দরবান নিয়ে আসে কালেক্টর মায়াধন চাকমা। এর মধ্যে চারটি তাদের কাছে রেখে চিফ কালেক্টর চা থোয়াইয়ের কাছে পৌঁছাতে বলা হয়। এসব বিস্ফোরক চীনের তৈরি বলে জানান তারা।

মতামত...