,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

রেলের টিকেটের বাজারে ভ্রাম্যমান আদালতের পাহারা

aনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ ঈদের রেলের টিকেটের বাজারে পাহারা বসিয়েছিলো জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালত।

শনিবার সকাল থেকে ম্যাজিস্ট্রেট আবুল মনসুরের নেতৃত্বে রেলস্টেশনে অবস্থান নেয় ভ্রাম্যমান আদালত।

শনিবার ঈদ উপলক্ষ্যে ৪জুলাই তারিখের অগ্রীম টিকেট ছাড়া হয়েছে। এই দিন প্রায় সাত হাজার টিকেট ছাড়া হয়।  সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে দুপুর একটার মধ্যে সব টিকেট প্রায় শেষ হয়ে গেছে।

সকাল থেকে দায়িত্ব পালন করেছেন জেলা প্রশাসনের ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল্লাহ আবু মনসুর।

তিনি জানান,  বেলা একটা পর্যন্ত লাইনে শ দেড়েক মানুষ ছিলো, সকাল থেকে প্রচুর ভিড় লক্ষ্য করা গেছে, যারা লাইনে দাড়িয়েছে তাদের সবাই কাংক্ষিত টিকেট পেয়েছে।

“এই প্রথম বারের মত চট্টগ্র্রাম রেলওয়ে স্টেশনে সার্বক্ষনিক ভ্রাম্যমান আদালত দায়িত্ব পালন করেছে, রেলওয়ে কর্তৃপক্ষও আন্তরিকভাবে টিকেট বিক্রীর জন্য ভালো ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করেছিলো, উল্লেখ করেন তিনি।

আবদুল্লাহ আবু মনসুর আরো জানান, রেলস্টেশনে আমরা টিকেট কালোবাজারী হয় কিনা সেই দিকে লক্ষ্য রেখেছিলাম, পরিচয় গোপন করে স্টেশনের আশে পাশে ঝুপড়ীগুলোতেও গিয়েছি কালো বাজারে টিকেট কিনতে, কাউকে পাওয়া যায়নি।

রেলের কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে কাউন্টারেও বসে ছিলাম অনেকক্ষন েযাত্রীদের হয়রানি হয় কিনা দেখার জন্য, তেমন কিছু চোখে পড়েনি, সবাই লাইন ধরে টিকেট নিয়ে যাচ্ছে, উল্লেখ করেন তিনি।

রেলওয়ে জানায়, অগ্রিম টিকেট বিক্রি কার্যক্রমে ২৬ জুন দেওয়া হবে ৫ জুলাইয়ের টিকেট।  এছাড়া ৪ জুলাই ৮ জুলাই’র ফিরতি টিকেট দেওয়া হবে।  ৫ জুলাই ৯, ৬ জুলাই ১০, ৭ জুলাই ১১ ও ৮ জুলাই ১২ জুলাই’র টিকেট দেওয়া হবে।

রেলওয়ের বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা মিজানুর রহমান ‍জানান, প্রথম তিনদিন তেমন ভীড় না থাকলেও চতুর্থ দিনে এসে টিকেট বিক্রির কার্যক্রম পুরোপুরি জমে উঠেছে।  সকাল থেকে টিকেটের জন্য ভিড় করছেন যাত্রীরা, দুপুরের মধ্যে নির্ধারিত অগ্রীম টিকেট বিক্রী শেস হয়ে গেছে।

 

মতামত...