,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

শিক্ষাঙ্গনে দূরবিসন্ধীমূলক হিন্দুত্ববাদ চেপে দেওয়া অভিযোগ বাবুনগরী্র

hafajat logoনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ চট্টগ্রাম, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমীর দেশের শীর্ষ আলেম আল্লামা শাহ মুহিবুল্লাহ বাবুনগরী ও যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মঈনুদ্দীন রুহী এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন, হেফাজতে ইসলাম ঈমান আকিদা রক্ষার সংগঠন ধর্মীয় যে কোন বিষয়ে এবং ইসলাম রক্ষার সংগ্রামে হেফাজতে ইসলাম উম্মতের ছকিদার ও ইসলামের ছকিদার। ইসলামের যে কোন দুঃসময়ে হেফজতে ইসলাম আন্দোলন চালাবে।
নেতৃদ্বয় বলেন, আজকে বাংলাদেশের প্রত্যেক স্থলে হিন্দুত্ববাদ কায়েম করা হচ্ছে, দেশের শিক্ষাঙ্গন কে ধ্বংস করা হচ্ছে, মুসলমানদের ছেলে মেয়েদেরকে সংষ্কৃতির নামে অপসাংস্কৃতি ও হিন্দুত্ববাদ শিক্ষা দেওয়া হচ্ছে। পাঠ্যবই পুস্তকে হিন্দুুদের দেবী পূজা হিন্দু রাজাদের কিচ্ছা কাহিনী হিন্দু পন্ডিতদের কাল্পনিক ধারণা এমন কি মুসলমানদের রীতিনীতির বিপরীত হিন্দুত্ববাদ শিক্ষা দেওয়া হচ্ছ্ েপ্রশাসনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ডি.সি, এস.পি, ও.সি, চেয়ারম্যান ও এম.ডি থেকে শুরু করে প্রধান প্রধান ডিপার্টম্যান পর্যন্ত হিন্দুদেরকে প্রসাশক হিসাবে বসানো হয়েছে। যা তৎকালিন ইষ্ট ইন্ডিয়া কোম্পানীর চক্রান্তই ছিল। তিনি বলেন ৯২%মুসলমানদের বাংলাদেশে সংখ্যালগু হিসাবে তারা তাদের রাজনৈতিক অধিকার এবং সাংবিধানিক অধিকার ভোগ করুক আমরা তারেকে নিশ্চিত ভাবে সৌহার্দপূর্ণ ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে রাখতে চাই। তবে ইসলাম ও মুসলমানদের ধর্মীয় অনুভূতি নিয়ে ছিমিনি খেলা কোন অবস্থায় মেনে নেয়া যায় না। নেতৃত্বদ্বয় বলেন, স্কুল কলেজে আমাদের ছেলে মেয়েদের ইসলামী শিক্ষা থেকে বঞ্চিত করার ষড়যন্ত্র শুরু করেছে বতমান শিক্ষা কমিশন, তারা ইসলামী ভাবধারা মূল্যবোধের স্থানে হিন্দুত্ববাদ শিক্ষা দিচ্ছে তাই আজকে এক মুখী শিক্ষা নীতির নামে ধর্মহীন শিক্ষানীতি বাস্তবায়নের চেষ্ঠা করতেছে। এ শিক্ষানীতির মাধ্যমে হিন্দুত্ববাদকে চেপে দেয়া হলে একদিন দেশে হিন্দুত্ববাদ কায়েম হবে। তাই আজকে দেশের ওলামায়ে কেরাম ও সচেতন মুসলিম সমাজের একটাই দাবি ধর্মহীন শিক্ষানীতি ও ইসলাম বিনাশী শিক্ষা আইন অবিলম্বে বাতিল করতে হবে।
নেতৃদ্বয় বলেন, নারায়ণগঞ্জের সাংসদ সেলিম উসমান খোদা দ্রোহী শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে শাস্তি দিয়ে প্রকৃত মুসলমানের কাজ করেছে, আমরা তাকে ধন্যবাদ জানাই। যারা আজকে ঐ হিন্দু শিক্ষককে রক্ষার জন্য চেষ্ঠা করতেছে তারা আদৌ মুসলিম কিনা সন্দেহ আছে। সরকারের যে সমব মন্ত্রিরা আল্লাহ সাথে কটুক্তিকারী শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তের পক্ষ নিয়ে সেলিম উসমানের চরিত্র হনন করে যাচ্ছে। তাদের সম্পর্কে দেশের মানুষ সজাগ আছে। আমরা তাদের উদ্দেশ্যে পরিস্কার করে বলে দিতে চাই এসব বিষয় নিয়ে কোন ধরনের নোংরা রাজনীতি বরদাশÍ করা হবে না। অবিলম্বে খোদাদ্রোহী শিক্ষকের শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। নেতৃদ্বয় বলেন হেফাজতে ইসলাম ও দেশের ওলামায়ে কেরাম সেলিম ওসমানের পাশে আছে এবং থাকবে। যে বা যারা ইসলামের পক্ষে থাকবে আমরাও তাদের পক্ষে থাকব। তাই সেলিম উসমানের চরিত্র হনন বন্ধ করে খোদাদ্রোহী শিক্ষককে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির ব্যবস্থা করুন। নেতৃত্বদ্বয় যারা একজন খোদাদ্রোহী হিন্দু শিক্ষককে শাস্তি দেওয়ার কারণে সেলিম উসমানের বিরুদ্ধে আন্দোলন করতেছে তাদেরকে বলব আপনারা আপনাদের নৈতিকতা নিয়ে একটু ভাবুন। নেতৃত্বদ্বয় এদেশে কোন খোদা দ্রোহীর স্থান নেই, যারা খোদাদ্রোহীদের পক্ষ নিবে তাদের স্থান ওলামায়ে কেরামে বাংলাদেশে হবে না।

— প্রেস বিজ্ঞপ্তি

মতামত...