,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

শিশুদের সুশিক্ষিত করে গড়ে তোলার বিকল্প নেই: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ২৯ বিডিনিউজ রিভিউজ.কম:: শিশুদের সুশিক্ষিত করে গড়ে তোলার বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেছেন, সরকারের পাশাপাশি নিজ নিজ এলাকায় বিত্তবানরা শিক্ষা ক্ষেত্রে অবদান রাখলে জাতির বৃহৎ কল্যাণ নিশ্চিত হবে।

আজ রোববার সকালে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে শিক্ষা সপ্তাহের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

রোববার থেকে শুরু হচ্ছে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহ-২০১৭। এ উপলক্ষে ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে শিক্ষা সপ্তাহের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে দেশে ৭১ ভাগ স্বাক্ষরতার হার রয়েছে। এটি শতভাগে উন্নীত করব।

তিনি বলেন, শিশুদের সুশিক্ষিত করে গড়ে তোলার বিকল্প নেই। এজন্য আমরা যুগোপযোগী শিক্ষা নীতিমালা গ্রহণ করেছি।

শেখ হাসিনা বলেন, শিক্ষাখাতে আমরা যেই বরাদ্ধ রাখছি তাকে ব্যয় বলছি না। কারণ আমাদের ছেলে-মেয়েরা শিক্ষা অর্জন করে দেশকে গড়বে। জাতিকে উন্নতি ও জ্ঞানের শিখরে নিয়ে যাবে- এজন্য আমরা শিক্ষাখাতের বরাদ্দকে ব্যয় নয়, বিনিয়োগ হিসেবেই দেখি।

তিনি বলেন, আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থায় সকল ধর্মের বিষয়ে আলাদা শিক্ষা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। যার যার ধর্ম শিক্ষা সে গ্রহণ করবে। কিন্তু সামগ্রিক শিক্ষা ও জ্ঞান অর্জনে সমান নীতি গ্রহণ করা হয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় প্রায় শতভাগ উত্তীর্ণ হচ্ছে। আমি আশা করি, ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় শিক্ষাখাতে উন্নয়নের মাধ্যমে আমরা সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দারিদ্র্যমুক্ত ও নিরক্ষরতামুক্ত সুখী-সমৃদ্ধ স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ নির্মাণ করতে সক্ষম হব।

তিনি বলেন, নৈতিক ও মানবিক মূল্যবোধসম্পন্ন, সুশিক্ষিত আগামী প্রজন্ম গড়ে তুলতে প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়নে ব্যাপক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে সরকার। শিক্ষায় লিঙ্গ সমতা আনার স্বীকৃতি স্বরূপ আমরা ইউনেস্কো ‘শান্তিবৃক্ষ’ পুরস্কারে ভূষিত হয়েছি। সরকার সবার জন্য শিক্ষা (ইএফএ) বাস্তবায়ন করেছে।

সরকাররের পাশাপাশি নিজ নিজ এলাকায় বিত্তবানদের শিক্ষা ক্ষেত্রে অবদান রাখার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাহলে আমাদের ছেলে-মেয়ের উচ্চ শিক্ষাগ্রহণ লাভে উপকৃত হবে। এতে তার পরিবার, দেশ ও জাতি উপকৃত হবে।

মতামত...