,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

শোকাবহ আগস্ট এলো

aনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজঃ শোকাবহ আগস্টের প্রথম দিন আজ। ১৯৭৫ সালের এ মাসেই বাঙালি হারিয়েছে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ সন্তান, স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে।

পঁচাত্তরের পনেরোই আগস্ট কালরাতে ঘাতকরা শুধু বঙ্গবন্ধুকেই হত্যা করেনি, তাদের হাতে একে একে প্রাণ দিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, বঙ্গবন্ধুর সন্তান শেখ কামাল, শেখ জামাল, শিশু শেখ রাসেলসহ পুত্রবধূ সুলতানা কামাল ও রোজি জামাল।

পৃথিবীর এই ঘৃণ্যতম হত্যাকাণ্ড থেকে বাঁচতে পারেননি বঙ্গবন্ধুর সহোদর শেখ নাসের, ভগ্নিপতি আব্দুর রব সেরনিয়াবাত, ভাগ্নে শেখ ফজলুল হক মনি, তার সহধর্মিণী আরজু মনি ও কর্নেল জামিলসহ পরিবারের ১৬ জন সদস্য ও স্বজন।

প্রতিবারের মতো এবারো ১৫ই আগস্টকে সামনে রেখে আগস্টের প্রথম দিন থেকেই শুরু হচ্ছে আওয়ামী লীগসহ সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতীম সংগঠনগুলোর মাসব্যাপী কর্মসূচি।

শোকের মাসের প্রথম দিন মধ্য রাত ১২টা ১ মিনিটে প্রথম প্রহরে আলোর মিছিলের মধ্য দিয়ে মাসব্যাপী কর্মসূচির সূচনা ঘটবে।

মিছিলটি ধানমন্ডি ৩২ নম্বর সড়ক ধরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর অভিমুখে যাত্রা করবে। সকালে কৃষকলীগের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হবে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি।

পনেরোই আগস্টের কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে ১৫ই আগস্ট প্রত্যুষে বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন।

সরকারি-বেসরকানি ভবনে জাতীয় ও দলীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ এবং কালো পতাকা উত্তোলন। মসজিদে মিলাদ মাহফিল ও মন্দির ও গির্জায় প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হবে এবং দুঃস্থদের মধ্যে খাবার বিতরণ করা হবে।

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর মাজারে সরকারি কর্মসূচি পালিত হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওই কর্মসূচিতে যোগদান করবেন।

আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধি দল মাজারে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করবে। এ ছাড়াও এ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।

শোকের মাস আগস্টে দেশজুড়ে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী এবং ভ্রাতৃপ্রতীম সংগঠন বিস্তারিত কর্মসূচি পালন করবে। বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনও পালন করবে মাসব্যাপী কর্মসূচি।

 

মতামত...