,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

সংবাদমাধ্যম কোনো বিজনেস নাঃ প্রধান বিচারপতি

sk singhaনিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম::  দেশের  সংবাদমাধ্যম ব্যবসায়ী হিসেবে কাজ করছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহা বলেন, সংবাদমাধ্যম কোনো বিজনেস না। এখানে যারা কাজ করেন, তাদের এটি পেশা।

বুধবার সুপ্রিমকোর্ট বার মিলনায়তনে প্রয়াত ব্যারিস্টার শওকত আলী খানের স্মরণ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইংল্যান্ডের দুটি ঘটনার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘সে দেশের সংবাদমাধ্যম নৈতিকতার কথা বিবেচনা করে অনেক কিছু প্রকাশ করেন না। কিন্তু আমার দেশের সংবাদমাধ্যম বিচার বিভাগের মান ক্ষুণ্ণ করতে একে বারে পিছপা হন না।’

তিনি বলেন, ‘সংবাদমাধ্যমে বিচারবিভাগের ভালো দিক তুলে ধরা উচিত। আমাদের দেশের সংবাদ মাধ্যম নিয়ে আমার খুব কষ্ট লাগে। সংবাদমাধ্যম রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আজকে যদি আমরা সংবাদকর্মীদের বিরুদ্ধে কনটেমপ্ট করি। তাহলে এতো মামলা দেখবো কীভাবে?’

তিনি আইনজীবীসহ সবাইকে আনুরোধ করে বলেন, ‘আমাদের সবাইকে বিচারবিভাগকে মানতে হবে। বিচারবিভাগের মান যেন অক্ষুণ্ণ থাকে এ জন্য আমাদের চেষ্টা করতে হবে।’

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল বাসেত মজুমদার।

আরো বক্তব্য দেন আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি আব্দুল ওয়াহাব মিঞা, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, এএফ হাসান আরিফ, অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি নজরুল ইসলাম চৌধুরী, সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, শ ম রেজাইল করিম।

স্মরণসভায় আরো উপস্থিত ছিলেন- দেশীয় সংস্কৃতির সভাপতি অ্যাডভোকেট গৌরাঙ্গ চন্দ্র কর, সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা তারাসহ শতাধিক আইনজীবী।

শওকত আলী খানের স্মরণ সভায় প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘শওকত আলীর সঙ্গে আমরা খুব ক্লোজ ছিলাম। প্রত্যেক দিন শওকত আলী খান আমার সিনিয়রের সঙ্গে দেখা করে যেতেন।’

তিনি বলেন, ‘এখানে আমরা যারা উপস্থিত হয়েছি, তারা সবাই একই পরিবারের লোক। আপনারা শুনেছেন, শওকত আলী রাজনীতি করতেন। কিন্তু তিনি নৈতিকতাবিরোধী কাজ করতেন না। নৈতিকতার কথা আমাদের সবারই মেনে চলা উচিত। কিন্তু এ প্রফেশনের অনেক কিছুই আমরা হারিয়ে ফেলছি।’

তিনি আরো বলেন, ‘শওকত আলীর গুণাগুণ আমরা মূল্যায়ন করি। মাহমুদুল ইসলামের জীবনও মূল্যায়ন করি।’

তিনি বলেন, ‘আমরা বিচারবিভাগে কোনো পক্ষপাতিত্ব করি না। অনেককেই মামলা থেকে জামিন দিচ্ছি। বিচারবিভাগ নিয়ে অনেক রাজনীতিবিদ কথা বলেন, যা ঠিক নয়।

 

বি এন আর/১৬০২১৭/০০০৮১ /পি

মতামত...