,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

‘সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় গণহত্যা,২১ আগস্ট০৪ঃসুরঞ্জিত

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা, ১৪ডিসেম্বর(বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম):: ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে গ্রেনেড হামলার ঘটনাকে ‘সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় গণহত্যা’ হিসেবে অভিহিত করেছেন মামলার সাক্ষী আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার সংলগ্ন বিশেষ জজ আদালতে ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলার মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের ২০৩ নম্বর সাক্ষী হিসেবে সোমবার সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত জবানবন্দি দেন।soragit

জবানবন্দিতে তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের শান্তিপূর্ণ জনসভায় বেসামরিক নিরস্ত্র জনতার ওপর সমরাস্ত্র হামলা করা হয়েছিল। এটি ছিল তৎকালীন ক্ষমতাসীন জোট সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় গণহত্যা।’

দেশ ও আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশূন্য করার জন্যই সুপরিকল্পিতভাবে ও সুচিন্তিতভাবে এ হামলা চালানো হয়েছিল- এমন মন্তব্য করে সুরঞ্জিত বলেন, ‘হামলাকারীদের মূল উদ্দেশ্য ছিল আওয়ামী লীগকে চিরতরে নেতৃত্বহীন করা, যা ১৫ আগস্টের রিপিটেশন (পুনরাবৃত্তি)।’

জবানবন্দিতে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, ‘২১ আগস্টের ঘটনা ছিল অত্যন্ত বিভৎস। অসহায় মানুষের চিৎকার। কারও শরীর থেকে পা চলে গেছে, হাত চলে গেছে, দেহ ছিন্ন বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এমন হৃদয়বিদারক দৃশ্য আমি আর কোনোদিন দেখিনি। এমন বর্বরোচিত আক্রমণ করতে পারে এটা আমি কল্পনাই করতে পারি না।’

তিনি বলেন, ‘ওই ঘটনার সময় আমি মঞ্চে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার পাশেই বসা ছিলাম। গ্রেনেড হামলায় আমি নিজেও আহত হয়েছিলাম। আমার গায়ে ২৬টি স্প্লিন্টার ছিল। আমার সারা শরীর ছিল রক্তাক্ত। আমাকে ধরে আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানকার অবস্থা ছিল আরও বিভৎস।’

পরে আদালতের বিচারক শাহেদ নূরুদ্দিন সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের বক্তব্য অসমাপ্ত রেখেই জবানবন্দি গ্রহণ মূলতবি করেন এবং মঙ্গলবার অবশিষ্ট জবানবন্দি গ্রহণের দিন ধার্য করেন। জবানবন্দি প্রদান শেষ হলে আসামিপক্ষ তাকে জেরা করবে।

প্রসঙ্গত, ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের জনসভায় সন্ত্রাসীরা গ্রেনেড হামলা চালায়। এতে আওয়ামী লীগের তৎকালীন মহিলাবিষয়ক সম্পাদিকা ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের স্ত্রী আইভি রহমানসহ ২৪ জন নিহত হন।

পরে আদালতের বিচারক শাহেদ নূরুদ্দিন সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের বক্তব্য অসমাপ্ত রেখেই জবানবন্দি গ্রহণ মূলতবি করেন এবং মঙ্গলবার অবশিষ্ট জবানবন্দি গ্রহণের দিন ধার্য করেন। জবানবন্দি প্রদান শেষ হলে আসামিপক্ষ তাকে জেরা করবে।

প্রসঙ্গত, ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের জনসভায় সন্ত্রাসীরা গ্রেনেড হামলা চালায়। এতে আওয়ামী লীগের তৎকালীন মহিলাবিষয়ক সম্পাদিকা ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের স্ত্রী আইভি রহমানসহ ২৪ জন নিহত হন।

মতামত...